Sunday, August 23, 2020

উম্মাদ, বদ্ধউম্মাদ!

কাউকে-কাউকে নিয়ে লেখাটা আমার ভাষায়, 'শব্দের অপচয়'। কালে-কালে আমি একজন অপচয়কারী রূপে পরিণত হচ্ছি। তসলিমা নাসরিনকে নিয়ে পূর্বে লেখায় সময়ও একই কথা বলেছিলাম [], [], []...।

এই উম্মাদ ২০১৫ সালে তার ভেরিফাইড একাউন্ট (উম্মাদদেরও ভে-এ থাকে) থেকে আমাদেরকে যা জানাচ্ছেন তার সারাংশ এখানে শেয়ার করা যাক:
১. তিনি যখন সুইজারল্যান্ডে ঠ্যাং নামান তখন জুরিখ এয়ারপোর্ট খালি করে দেওয়া হয়।
২. এয়ারপোর্টে ওনার বডি বাঁচাবার জন্য সত্যিকারের কামান আনা হয়।
৩. আবারও তিনি যখন প্যারিসে ঠ্যাং নিয়ে নামেন তখন ওনার জন্য ২০০০ পুলিশ আনা হয়েছিল। ২০০০ পুলিশ! পুলিশে পুলিশে সয়লাব হয়ে পুলিশে-পুলিশে ঠ্যাংয়ে ঠ্যাংয়ে বাড়ি খাওয়ার কথা!
৪. ওই সময় অর্ধেক প্যারিস বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। মানে তখন প্যারিসকে ইলেকট্রিক করাত দিয়ে কেটে ফিফটি ফিফটি করা হয়েছিল।
৫. ল্যুভর মিউজিয়াম খালি করে দেওয়া হয়েছিল। এমনকি পিঁপড়া, তেলাপোকা, উইপোকা, সবাইকে। এমনকি ওদেরকে কমোড থেকেও বের করে দেওয়া হয়েছিল।
৬. জার্মানিতে বুলেটপ্রুফ গাড়ি ছাড়া তিনি গাড়িতে দুই পা দূরের কথা এক পাও রাখতেন না। তাও আবার সেই গাড়ি ছুটত ২০০ মাইল বেগে মানে প্রায় ৩২২ কিলোমিটার বেগে। পোরশে, ফেরারি ব্যতীত এই স্পিড উঠানো জার্মানির পুলিশ কেন 'হার্মানির' পুলিশও তুলতে পারবে না। আর জার্মানির পুলিশদের ফেরারি, পোরশে দেওয়া হয় এটা আমি একটু আগে জার্মান মিডিয়ায় কাজ করে এমন-একজনের জানতে চাইলে তিনি যেটা ভদ্র ভাষায় বলেছেন তার অর্থ হলো, এটা কোন পাগলে বলে!
৭. ইতালিতে গাড়ির জানালা দিয়ে রাইফেলের নল খল খল করে হাসত।
৮. এটা সবার শেষে রেখেছি কারণ এখানে এসে সাবজেক্ট পুরোপুরি উম্মাদ হয়ে পড়ে। গ্রামের ভাষায় যেটাকে বলে, 'বেন্দা পাগল'! এর সঙ্গে নাকি নিরাপত্তা অফিসার টাইপের একটা স্যুটকেস নিয়ে ২৪ ঘন্টার মধ্যে '২৫ ঘন্টাই' ফলো করত। ওই স্যুটকেস আবার আঙ্গুল দিয়ে একটু ফাঁকও করে রাখত। যেন নিমিষেই পাগলটাকে আটকাবার জন্য লোহার তাবুটা ছড়িয়ে দিতে পারে। স্যুটকেসটার ওজন মাত্র ৪০০ থেকে ৫০০ পাউন্ড।  প্রায় ২০০ কেজি! যে পাঠক এটা পড়ছেন আপনি নিজের ওজনের সঙ্গে একটু মিলিয়ে নিন...।

সহায়ক সূত্র:
১. তসলিমার কাটা পা: https://www.ali-mahmed.com/2019/08/blog-post_28.html
২. একালের...: https://www.ali-mahmed.com/2012/08/blog-post.html
৩. পুনর্মূষিকো ভব!: https://www.ali-mahmed.com/2014/09/blog-post_4.html

No comments: