Search

Loading...

Sunday, January 29, 2012

হাতুড়ি-ভাইয়া

ছবি ঋণ: প্রথম আলো, ২৫ জানুয়ারি, ২০১২
এটা একটা অসাধারণ ছবি। আমি অভিভূত! 'বঙ্গাল' বলে কথা!
সবাই জানেন, এটা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনা। উল্লেখ করার মত বিশেষ কিছু না, ভাইয়ে ভাইয়ে খুনসুটি চলছে। ভালই তো।

অবশ্য পত্রিকাওয়ালারা রগড় করে বলছে অন্য কথা, ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ [১]। আহা, সমস্যা কোথায়? এরা তো আর অন্য কারও সঙ্গে লাগতে যায়নি, নিজেরাই নিজেদের মধ্যে...। এই নিয়ে তো অস্থির হওয়ার কী আছে!
আমরা সবাই সেই শিম্পাঞ্জীর কথা জানি। চিড়িয়াখানার কর্তৃপক্ষকে এক দর্শক অভিযোগ করলেন, শিম্পাঞ্জীরা নাকি তাস খেলছে, বাদাম দিয়ে জুয়া খেলছে।
চিড়িয়াখানার কর্তৃপক্ষ ঠোঁট উল্টে বলেছিলেন, জুয়া খেলছে খেলুক না, সমস্যা কোথায়। টাকা দিয়ে তো আর খেলছে না!

এদিকে পত্রিকাওয়ালা আরও জানাচ্ছেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত ছিল...। তো? সমস্যা কোথায়- উপস্থিত ছিল। সিনেমার মত অনুপস্থিত তো আর ছিল না।
এদের মধ্যে কাকে কাকে পুলিশ নাগালে পেল এটা আমার লেখার মূল বিষয় না কারণ আমি আগেও লিখেছিলাম, পুলিশ লিখবে কবিতা [২]। ওখানে বলেছিলাম, এই সমস্ত ছবি যেসব সাংবাদিক ক্যামেরায় আটকে ফেলেন তাঁদেরকে পুলিশে চাকুরি দেয়া হোক আর পুলিশ কবিতা লিখুক। অন্তত সফট কিছু ওয়েবসাইটে ব্লগিং করুক, কবিতা-টবিতা লিখুক।

আমার জানাই ছিল না 'বঙ্গাল' কত বুদ্ধি রাখতে পারে- বুদ্ধির অভিনবত্ব দেখে হাঁ হয়ে যাই! ছবিতে এই যে আমরা হাতুড়ি ভাইয়াকে দেখছি। হাতুড়ি নিয়ে, 'ওই আসে হাতুড়ি ভাইয়া'। আচ্ছা, আমার কি 'ওই আসে হাতুড়িমানব' বলা উচিত? হাতুড়ি-ভাইয়া বলায় ভাইয়া না আবার ক্ষেপে যান?

আমি নিজের অজান্তেই ভয়াবহ এক অন্যায় করে ফেলেছি। জেনেশুনে যে করিনি এটা আজ জনে জনে কেমন করে বিশ্বাস করাই। নিজের দোষ কবুল করার উপায়ও যে নেই, হায়। হাতুড়ির শপথ, হাতুড়ি যে একটা অস্ত্র এটা আমার জানাই ছিল না।
পাঠক, আমি আপনাকে বিশ্বাস করি বলেই কেবল আপনাকেই বলছি, কেবল আপনাকেই। আর কাউকে বলবেন না যেন, প্লিজ। এই জিনিস, এই জিনিস না, মানে এইটা আর কী, বুঝলেন না ইয়ে মানে এই অস্ত্র আমার ভান্ডারেও আছে, একটা না, দুই দুইটা!
আমি আগে এও জানতুম না যে এর লাইসেন্স করাতে হয়।

এখন কি লাইসেন্স করে ফেলব? পাগল, এখন হাতুড়ির লাইসেন্স করাতে গিয়ে ধরা খাই আর কী...। 

সহায়ক সূত্র:
১. ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ: http://www.prothom-alo.com/detail/date/2012-01-25/news/219284
২. পুলিশ লিখবে কবিতা: http://www.ali-mahmed.com/2010/05/blog-post_09.html

No comments: