Sunday, April 18, 2010

মোঃ মোস্তফা কামাল: আমি দুঃখিত, লজ্জিত

The BOBs আয়োজিত "Special Topic Award Climate Change" এই বিভাগে "Bangladesh Banchlei Bishwa Bachbe" এই সাইটটি প্রতিযোগিতা করেছে। 

নিজের লেখালেখির সাইট ব্যতীত অন্য সাইটে আমার তেমন সময় দেয়া হয়ে উঠে না। একদিন অন্যান্য বিভাগের ব্লগগুলো দেখে আমি চমকে উঠলাম, "Bangladesh Banchlei Bishwa Bachbe" এই ব্লগটি এবং স্পেনের "Ecoplaneta" ব্লগটি পাঠকের ভোটে, অনুপাতে সমান সমান। পরে অবশ্য ক্রমশ পার্থক্যটা বেড়েছে।

এই দুইটা ব্লগের মন্তব্য ভিজিটরের সংখ্যা বিচার করলে মন্তব্যের দিক দিয়ে অনেক এগিয়ে ছিল "Bangladesh Banchlei Bishwa Bachbe" এই সাইটটি। 
Bangladesh Banchlei Bishwa Bachbe এই সাইটির প্রথম না হওয়ার কোন কারণ আমি দেখি না। অনেকটা সময় এই দু্ইটা ব্লগের ভোটের অনুপাত প্রায় কাছাকাছি ছিল। তাহলে?

আমি মনে করি, আমরা এই দেশের লোকজনরা যদি আরও খানিকটা চেষ্টা করতাম তাহলে এই ব্লগসাইটটি অবশ্যই প্রথম হতো। এই নিপাট মানুষটাকে নিয়ে কোথাও প্রচারণা আমার চোখে পড়েনি।

আজ আমার নিজেকে চাবকাতে ইচ্ছা করছে, আমি নিজে কী করেছি? কেন এই বাংলাদেশী সাইটটার জন্য অন্য দেশের লোকজনের মত ঝাপিয়ে পড়লাম না, কেন এটাকে কচ্ছপের মত কামড় দিয়ে ধরলাম না?

আমরা বিভিন্ন কমিউনিটি ব্লগে লেখালেখির সুবাদে একে-ওকে ধরাধরির যে সুবিধা ভোগ করি; অনুমান করি, প্রায় একা একা এই মানুষটি সেই সুবিধাটুকু পাননি। তারপরও এই মানুষটা হেমিংওয়ের সেই বুড়ো সান্তিয়াগোর মত লড়ে গেছেন। 
আমার লজ্জিত হাত উঠিয়ে বলি, স্যালুট, ম্যান।


2 comments:

Md. Mostofa Kamal said...

মহৎ মানুষদের সাথে আমাদের মত সাধারণের পার্থক্যটা এখানেই। ওরা ওদের মহত্ব দিয়ে সাধারণ মানুষদেরকে খুব বেশী ঋণী করে ফেরেন। এই ব্লগের স্রষ্টার কথাই বলছি। এভাবে একটা পোস্ট দিয়ে আমাকে লজ্জিত না করলেই কি হতো না? আমি খুব অল্প সময়ের মধ্যে যতটা সম্ভব একটা সমৃদ্ধ ব্লগ নিয়ে প্রতিযোগিতার দৌড়ে সামিল হয়েছিলাম। কিন্তু কখনোই প্রথম হওয়ার আশা করিনি। তারপরও যখন সেরা এগারোতে মনোনয়ন পেলাম আমার পুরস্কার তখনই পাওয়া হয়ে গেছে। সত্যি বলছি, শুরু থেকেই যখন দেখলাম ভোটে আমি এগিয়ে তখন আমার যেন বিশ্বাস হচ্ছিল না। আপনার কথাটাই ধার করে বলতে হচ্ছে-“পেছনের কাতারের মানুষগুলো হঠাৎ করে সামনে চলে এলে সব যেন কেমন এলোমেলো হয়ে যায়”, ঠিক সেরকম আর কি। তাই বারো তারিখে যখন দ্বিতীয় স্থানে নেমে এলাম তখন আশ্চর্য হইনি। তেরো তারিখে আবার 32-29 ভোটে প্রথম স্থানে চলে যাওয়াট‍াই বরং অবাক করেছে আমাকে। আমার এই ব্লগটি নিয়ে দেশের মুখ উজ্জল করবো-এতটা আকাশসম বিশাল স্বপ্ন দেখার সাহস আমার হয়নি। যারা ভোট দিয়েছিলেন তারা হয়তো সেটি ভেবেছেন। তারপরও আমার কোন দুঃখবোধ নেই। হয়তো অনেক অনেক ভাল লাগতো দেশের জন্য কিছু করতে পারলে।
এবার আপনাকে বলি-আমি বাংলা ভাষা ক্যাটাগরিতে মনোনয়ন পাওয়া প্রতিটি ব্লগ আমি খুব মনযোগসহকারে দেখেছি। যারা আমাকে ভোট দিয়েছেন বা যোগাযোগ করেছেন তাদের প্রত্যেককেই আমি বলেছি আপনার ব্লগটিকে ভোট করতে।
আপনাকে আবারো্ লাল সালাম দেশের পক্ষে প্রথম এতবড় সম্মানের অধিকারী হওয়ার জন্য আর আপনার মহত্বের জন্য। সেই সাথে অনুরোধ করবো আসুন আমরা ব্রগিংকে জনপ্রিয় করার জন্য কার্যকরী কিছু করি।
মোঃ মোস্তফা কামাল, ঢাকা।

।আলী মাহমেদ। said...

আরে কী বলেন! একজন লজ্জিত মানুষকে কেন এই সব বলে লজ্জা দেন!

আমার অনুভূতিটা আপনাকে আরও আগেই জানাতাম। কিন্তু আমার নিজস্ব জাগতিক জটিলতার সঙ্গে যোগ হয়েছে অনাহূত কিছু জটিলতা।
নিরিবিলিতে দু-কলম লেখালেখি করতাম সেই ভাল ছিল- কেন এই সম্মান পেয়ে দেশকে অসম্মান করলাম? এতে আমার তো কোন হাত ছিল না!
তার উপর যে কম্পিউটারে এখন কাজ করি এটার এক সেকেন্ড ব্যাকআপ নাই, বিদ্যুতের যন্ত্রণায় একটা মেইল করা দুস্কর হয়ে পড়ে। এই সব কারণে আপনাকে অভিনন্দন জানাতে দেরী হয়ে গেল। আমার এই অনিচ্ছাকৃত বিলম্বের জন্য দুঃখ প্রকাশ করি।

বুকে হাত দিয়ে বলি, আমাকে আজ যদি আপনার এবং আমার ব্লগ বেছে নেয়ার জন্য সুযোগ দেয়া হয়; আমি আপনার ব্লগটা বেছে নেব।
কেন জানেন? এর পেছনে আমার আবেগ না, যুক্তি আছে। আমি সত্যি অভিভূত, আপনার ব্লগটা অন্য সব ভাষার মধ্যে যেভাবে লড়ে গেছে, সম্মানটা আপনিই পাওয়ার যোগ্য।

আপনার জন্য আমার কষ্টটা শেয়ার করে হালকা লাগছে।
আপনার মত একজন লড়াকু মানুষের সঙ্গে হাত মেলাতে পারা আমার জন্য গর্বের।

ভাল থাকুন, অনেক।