Saturday, March 26, 2011

হলুদ সাংবাদিকতা!

মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কিছু লেখা পড়ে ঝিম মেরে থাকি। যেসব সংলাপ বা রগরগে বর্ণনা থাকে আদৌ কী সত্য, নাকি..., ধন্ধে পড়ে যাই! অনেক ঘটনা পড়ে আমার মনে হয় লেখক সাহেব মনের মাধুরী মিশিয়ে একটা মশলাদার চানাচুর পরিবেশন করেন। আজ এর প্রমাণ হাতে হাতে পেলাম...।

আজ ইত্তেফাকের বিশেষ আয়োজনে একজন নৌ-কমান্ডোকে নিয়ে লেখা পড়ে হাসব না কাঁদব এখনও ঠিক করে উঠতে পারিনি। এই নৌ-কমান্ডোর নাম ফজলুল হক ভূঁইয়া, যদিও তাঁর নাম দেয়া হয়েছে মোঃ ফজলুল হক!
এই মানুষটাকে নিয়ে আমি কিছু কাজ করেছিলাম [১] [২] [৩] [৪]। অনেকবারই আমার সঙ্গে কথা হয়েছে কিন্তু তাঁর মুখে ইত্তেফাকের এই সব আজগুবি তথ্যের লেশমাত্রও পাইনি! ইত্তেফাকের এই লেখার ছত্রে ছত্রে ভুল, আমি অজস্র ভুল তথ্য ধরিয়ে দিতে পারি কিন্তু শব্দের অপচয় করতে আলস্য বোধ করছি। পন্ডশ্রম না-করে কেবল একটা বিষয়ই উল্লেখ করি:
ইত্তেফাক লিখেছে (ফজলুল হক ভূইয়া বলছেন): "...১৯৭১ সন, আমি তখন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের ২য় বর্ষ (সম্মান) শেষে সাবসিডিয়ারি পরিক্ষার্থী..."। 

সত্য ঘটনা হচ্ছে, এই মানুষটা নিরক্ষর!


ফযু ভাই মানুষটা আজই ২৬ মার্চ এক অনুষ্ঠানে ছিলেন কিন্তু এটা পড়ার পর এই বিষয়ে আলাপ করার জন্য আমি আর তাঁকে খুঁজে পাচ্ছিলাম না। মানুষটার তো আর ফোন নেই যে ফট করে ফোন দিয়ে খুঁজে বের করে ফেলব। অবশেষে রাতে মানুষটাকে পাওয়া যায়।
video


সহায়ক সূত্র:
১. অন্য রকম বিজয় দিবস: http://www.ali-mahmed.com/2010/12/blog-post_16.html
২.  নৌ-কমান্ডো ফজলুল হক ভূঁইয়া, এক: http://www.ali-mahmed.com/2010/06/blog-post_4596.html
৩. নৌ-কমান্ডো ফজলুল হক ভূঁইয়া, দুই: http://www.ali-mahmed.com/2009/04/blog-post_18.html
৪. নৌ-কমান্ডো ফজলুল হক ভূঁইয়া, তিন: http://www.ali-mahmed.com/2009/04/blog-post_22.html

8 comments:

Omio Ujjal said...

নিবন্ধটির যিনি লেখক তিনি মনে হয় লেখালেখি নামক ক্লান্তিকর কাজটি করতে খুব একটা পছন্দ করেন না। তবে তার একটা লেখা ছাপা হোক সেটা খুব চান।তাছাড়া সেটা হয়তো তার চাকরি ও। তাই অন্য কারো প্রসঙ্গে লেখা একটি নিবন্ধ শিরোনাম টিরোনাম সহ হুবুহু চালিয়ে দিয়েছেন,শুধু মূল চরিত্রটি চেইঞ্জ।
আরেকটা কারণ থাকতে পারে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন পদারথ বিগ্যানের ছাত্র নৌ কমান্ড হয়ে বার্জ উড়িয়ে দিয়েছেন এই গল্পের 'মারকেট ভ্যালু' অনেক হাই।পাব্লিক ও খাবে ভালো। 'মুক্তিযুদ্ধ' 'মুক্তিযুদ্ধ' বলে শুধু শব্দদূষণ করলেই তো হলনা, এর 'মারকেট ভ্যালু' ও থাকতে হবে।ইত্তেফাকের পাতা ও ভরলো হেভি এক্সাইটিং একটা ফিচার ও গেল।নট ব্যাড।

রায়হান said...

এইগুলারে থাপড়ায়া কানপট্টি ফাটায়া ফেলা দরকার মুক্তিযুদ্ধরে বাজার বানায়া ফেলাইছে। মনে কিছু নিবেন না মেজাজ খুব বিলা হইছে,

।আলী মাহমেদ। said...

আমাদের মিডিয়া, মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কাজ করার জন্য ডিসেম্বর এবং মার্চকে বেছে নেয়- বাকী দশ মাস ঝিম মেরে থাকে! আয়োজন করে কান্নাকাটি করলে যা হয় আর কী! ফল যা হওয়ার তাই হয়, আরোপিত বিষয়গুলো সামনে চলে আসে। এটা স্রেফ একটা নমুনা মাত্র... @Omio Ujjal

।আলী মাহমেদ। said...

:o @রায়হান

Anonymous said...
This comment has been removed by a blog administrator.
।আলী মাহমেদ। said...

আপনার চেয়ে আমার ক্ষোভও কম না কিন্তু এটা ক্ষোভ জানাবার কোন ভাষা হলো না। মন্তব্য মুছে দিলাম, দুঃখিত! @Anonymous

Ripon Majumder said...

"মো.ফজলুল হক" নামেও কিন্তু আমাদের একজন নৌ-কমান্ডো আছেন। যাঁর পিতা- মৃত মো.চান মিয়া, গ্রাম- তুলাতলি, পোষ্ট- পাঁচগাছিয়া, থানা- দাউদকান্দি, জেলা- কুমিল্লা। নৌ.নং- ১৪৭৫। নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দর অপারেশনের জন্য তিনি ছিলেন ছয় জন কমান্ডোর দলনেতা। অভিযানের পথে পাকিস্তানী সেনাবাহিনীর এমবুশে পড়ে গুরুতর আহত হন...

।আলী মাহমেদ। ali mahmed । said...

"মো.ফজলুল হক" নামেও কিন্তু আমাদের একজন নৌ-কমান্ডো আছেন।..."
দুঃখিত, এই বিষয়ে আমার জানা নাই।
...
তবে, ইত্তেফাকে যে মানুষটিকে নিয়ে লেখা হয়েছে তিনি আপনার উল্লেখিত সেই মানুষটি নন...@Ripon Majumder