Saturday, March 5, 2011

কারক নাট্য সম্প্রদায় এবং...

কেবল এটাই শুনেছিলাম 'কারক নাট্য সম্প্রদায়' নামের সংগঠনটি প্রতি বছর শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে ভাষা নিয়ে বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়ে থাকে। ২৫/ ২৬ ফেব্রুয়ারি দুদিনের অনুষ্ঠান। ওখানে গিয়ে আমি পুরো থ! হা ঈশ্বর, এক দুই বছর না, বছরের-পর-বছর ধরে এই উদ্যোগটা চালু আছে- দুই যুগ ধরে এটা চলে আসছে। পুরো চব্বিশ বছর!

আমি থাকি গ্রাম-গ্রাম টাইপের একটা জায়গায়। জানার সুযোগ অনেক কম, মিডিয়াই ভরসা। আমার ভুলও হতে পারে কিন্তু আগে কোথাও ফলাও করে এঁদের খবরটা দেখেছি বলে তো মনে করতে পারছি না। আমাদের মিডিয়ার আবার কিছু 'নখরামী' আছে, করপোরেট তেল গায়ে না-মাখলে ঠিক জোশটা আসে না। এখানে তো আবার করপোরেটের গন্ধ নাই! 'কারক নাট্য সম্প্রদায়'-এর লোকজনরা নিজেদের উদ্যেগেই এর আয়োজন করে থাকেন। এর ছাপও সুষ্পষ্ট! দূরদারাজ থেকে আগত শিল্পীদের এরা কোন সম্মানী দিতে পারেন না বলে ভারী বিব্রত বোধ করেন। মূলত এটার হাল ধরে রেখেছেন শংকর সাওজাল এবং শংকর দা'র সঙ্গে একঝাক তরুণ। এঁরা সেইসব তরুণ যাদের চোখে আছে কেবল অদেখা এক স্বপ্ন।

এঁদের অন্যতম উদ্যোগ হচ্ছে, বাচ্চাদের জন্য 'বর্ণমেলা'। অবশ্য 'বর্ণমেলা' শব্দটা লিখে ঠিক করলাম কি না বুঝতে পারছি না। কারণ এটা ছিনতাই হয়ে গেছে! জুম্মা জুম্মা সাত দিন! গতবছর থেকে একটি দৈনিক ঘটা করে এটা পালন করে আসছে। না-না অন্য কেউ এমন আয়োজন করতে পারবে না এমনটা বলা হচ্ছে না। কিন্তু আমাদের দেশে অন্যদের উৎসাহিত করার চল নাই, এরা ইচ্ছা করলে কারক নাট্য সম্প্রদায়ের সঙ্গে মিলে কাজটা করতে পারত কিন্তু আমাদের যে পেট অনেক বড়ো- সব খেয়ে ফেলো, সব নিয়ে নাও নিজেরা।

এই যে উদ্যোগ বর্ণ পরিচয়ের, এর ফল যে কী সুদূরপ্রসারী এটা কল্পনা করা কী সম্ভব! একটি বর্ণ মানে তো কেবল বর্ণ না। সুউচ্চ ইমারতের প্রথম ইট! যে ইটটা ভালো করে না-বসলে ইমরারতটাই যে ধসে পড়ে।
অন্য প্রসঙ্গে কোথাও লিখেছিলাম, একটি বর্ণ, একটি স্কুল, একটি যুদ্ধ, একটি পতাকা; সবমিলিয়ে যে দেশ তার নাম বাংলাদেশ।
এঁরা কাজ করছেন ভাষা নিয়ে। আমি সামান্য একজন, ভাষা নিয়ে এতো উঁচুমার্গের কথা বুঝি না, কেবল বুঝি, আমার যখন তীব্র কষ্ট হয়, সহ্যাতীত। তখন আমার বেঁচে থাকার জন্য যে বাক্যটা প্রয়োজন সেটা হচ্ছে, মা-মা, অমা, বড়ো কষ্ট! মার এই ভাষায় এটা বলতে না-পারলে আমি তো কবেই মরে ভূত হয়ে যেতাম! তাহলে আজ আর এই সব ছাইপাঁশ-ছাইভস্ম লেখার জন্য বেঁচে থাকতাম না! 

কারকের অন্য উদ্যোগগুলো, একুশের গান, একুশের আলপনা প্রদর্শনী, একুশে আলোকচিত্র প্রদর্শনী। এঁদের অসাধারণ শ্লোগান হচ্ছে, "এসো রক্তে জেতা বর্ণমালা সুন্দর করে লিখি"।
 



এমনিতে 'কারক নাট্য সম্প্রদায়' এই দেশের অনেককেই সম্মান জানিয়ে থাকেন। যেমন গাজীউল হককে। উইকি থেকে জানা যাচ্ছে,  "...'কারক নাট্য সম্প্রদায়'-এর ১২ বছর পূর্তিতেও তাঁকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়৷" [১] 
সহায়ক সূত্র:
১. উইকি: http://bn.wikipedia.org/wiki/%E0%A6%97%E0%A6%BE%E0%A6%9C%E0%A7%80%E0%A6%89%E0%A6%B2_%E0%A6%B9%E0%A6%95

* dhaka news24: http://dhakanews24.com/?p=5615 
** কালের কন্ঠ: http://tinyurl.com/5r9h7wj                                                      ***janakantha: http://www.dailyjanakantha.com/news_view_all.php?nc=42&dd=2010-02-27                                            ***boston bangla news: http://bostonbanglanews.com/index.php?option=com_content&view=article&id=2557:2011-02-26-07-02-49&catid=37:2010-10-11-16-50-49&Itemid=139                                                                                                                                                                    

4 comments:

রাহি said...

আলী ভাই, মিডিয়া হালারা কি করে? কারক এত্তো বছর ধইরা এরা কাজ করতেছে এইগুলা নিয়া আগে রিপোর্ট করে না ক্যান?

Shila said...

Karok-ke salam.

।আলী মাহমেদ। said...

আগে মিডিয়া খবরের পেছনে ঘুরত আর এখন খবর মিডিয়ার চারপাশে ঘুরপাক খায়। কলিকাল! @রাহি

।আলী মাহমেদ। said...

ধন্যবাদ, আপনার অনুভূতি তাঁদের কাছে পৌঁছে দেব...@Shila