Tuesday, June 15, 2010

এ গ্রহের গ্রহপিতা: ইসরাইল

ইসরাইল [১]। লোকজন কেন দেশটাকে ছোট বলে শিশুসুলভ আচরণ করে আমি জানি না। কেউ যেমন এটম বোমা দেখে নির্বোধের মত মুখ ফসকে বলে ফেলে, আরে, এইটা এতো ছোট! ইসরাইলের থাবা এই গ্রহের কোথায় নাই, কত রকমে নাই [২]?

এই গ্রহ কার? ইসরাইলের। এই গ্রহ চালাচ্ছে কে? ইসরাইল। এই গ্রহের গ্রহপিতা কে? কে আবার নেতানিয়াহু। এই গ্রহের অন্যান্য রাষ্ট্রপ্রধানদের উচিৎ সকালে গ্রহপিতা নেতানিয়াহুর নাম জপ করা, বাধ্য থাকা। ইসরাইলের নির্বাচনের পূর্বে, ওবামাকে ম্যাসেজ দেয়ার জন্য কিছু খেলা খেলতে হয়। সভ্য জাতিদের জন্য এমন খেলা খেলাটা বড্ডো জরুরি [৩]

আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ওবামার দুঃসাহস দেখে আমি আঁতকে উঠি। কী পাগলামি এটা! ওবামার কী মাথা খারাপ, মানুষটার মাথা কী আউলা-ঝাউলা হয়ে গেছে? ওবামা কি না নেতানিয়াহুর সঙ্গে পূর্বনির্ধারিত ডিনার বাতিল করে দেন? যৌথসংবাদ সম্মেলন হয় না, এমন কি ওবামার সঙ্গে নেতানিয়াহুর বৈঠকের কোনও ছবিও প্রকাশ করা হয়নি। সম্ভব?

বেচারা জাতিসংঘ, বেচারা জাতিসংঘের মানবাধিকার সংস্থা! বেচারা, মহাসচিব বান কি মুন। বেচারাদের জন্য বড়ো মায়া হয়। এরা কি জানে না গ্রহপিতা হচ্ছেন ব্রিটেনের রানীর মত। সব কিছুর উর্ধ্বে। সীটবেল্ট না বাঁধলেও তাঁকে আটকানো যাবে না কারণ রানীকে কোন আইনের আওতায় আনা যায় না। তিনি নিজেই নিজের বিচার করবেন, চাইলে।

অবরুদ্ধ গাজাবাসীর জন্য জাহাজযোগে ত্রাণসহায়তা দেয়ার সাহস আসে কোত্থেকে? ইসরাইল ফটাফট গুলি করে মেরে ফেললে এর জন্য ইসরাইলকে দোষারোপ করা হবে কেন? ইসরাইল কি বলেছে, যাও গিয়ে গাজায় ত্রাণ দাও। তাহলে?
৩১ মে গাজা অভিমুখী ত্রানবাহী জাহাজে ৯জন তুর্কি নাগরিক নিহত হয়। তুরস্কের উপপ্রধানমন্ত্রী বুয়েন্ত আরিনক মৃত, জীবিতদের স্বাগত জানিয়ে ইসরাইলের সমালোচনা করে আনুষ্ঠানিক ক্ষমা চাওয়ার জন্য বাচ্চাদের মত আবদার করেছেন।
বড়োরা বাচ্চাদের সব আবদার পূরণ করে বুঝি? নেতানিয়াহু এটুকু বলেছেন এই তো ঢের, ইসরাইল যা করেছে তার জন্য তিনি মোটেও অনুতপ্ত-দুঃখিত নন এবং এই কারণে ক্ষমা চাওয়ার প্রশ্নই উঠে না।

ইসরাইলের মনটা বড়ো নরোম! গাজাগামী ত্রানবাহ জাহাজ থেকে আটক তুরস্কের নাগরিক নিলুফার কেতিন এবং তার ১ বছরের শিশুকে ইসরাইল ছেড়ে দিয়েছে। নিলুফার আবার কেমন করে এটা বলেন, ইসরাইলি সেনারা আমার এবং আমার বাচ্চার সঙ্গে অমানবিক আচরণ করেছে। সামান্য কৃতজ্ঞতা বোধ কী তাঁর নাই?
শোনো কথা, মেরে যে ফেলেনি এটাই কি যথেষ্ঠ না?

আমার মনে হয় সৌদি আরবই সবচেয়ে সুবোধ বালক, গ্রহপিতাকে মান্য করে। সৌদি আরব ইরানে হামলা চালাবার জন্য ইসরাইলকে বিমান চলাচলের জন্য সুযোগ করে দিয়েছে। সৌদি শাসক গ্রহপিতা নেতানিয়াহুর পাদোদক (বৃদ্ধাঙ্গুলি স্পর্শ করা পানি, চরণামৃত) পান করে ব্রেক ফাস্ট শুরু করেন এতে সন্দেহের কোন অবকাশ নেই। অন্যরা যে কেন সৌদি শাসকদের মত সুবোধ বালক হতে চান না এটা দুর্বোধ্য। বোকার দল, সৌদিদের দেখে শেখে না কেন এরা? 
ইরাকের পবিত্র স্থানগুলো যখন আমেরিকান সৈন্যরা পদদলিত করে তখন সৌদি আরব তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করে। হিস্ট্রি রিপিট- সৌদির পবিত্র স্থানগুলো যখন আক্রান্ত হবে তখন সবাই তাকিয়ে তাকিয়ে দেখবে। ইয়ে যখন অবধারিত...।

সহায়ক লিংক:
১. জুইশ শিশু: http://www.ali-mahmed.com/2009/01/blog-post_7757.html
২. জুইশদের দানব হয়ে উঠা: http://www.ali-mahmed.com/2009/01/blog-post_10.html 
৩. অন্য রকম খেলা: http://www.ali-mahmed.com/2009/05/blog-post_493.html 

No comments: