Friday, April 2, 2010

স্মৃতি রোমন্থন-চর্বিতচর্বণ-জাবরকাটা

সামহোয়্যারে সবচেয়ে বেশি ফাজলামী করতাম আমরা, আমি এবং ধুসর গোধূলি। মাঝে-মাঝে শের-শায়েরীর আসর বসত। অনেকেই এই দেয়াল ভেদ করতে পারতেন না। কেউ কেউ বিজাতীয় ভাষা বলে অনাগ্রহ দেখাতেন, বোকা-বোকা মন্তব্য করতেন। নব্য মুক্তিযোদ্ধা কেউ হিন্দি, উর্দু গুলিয়ে ফেলে চরম বিরক্ত হতেন, দেশদ্রোহী বলার জন্য মুখ হাঁ করতেন। তাতে করে আমাদের আসরের জৌলুশের কোন ঘাটতি হতো না।

একবার ধুসর গোধূলির জন্য একটা পোস্ট দিলাম। আনন্দনারায়ন মুল্লা আমার অসম্ভব পছন্দের।

"উয়ো কৌন হ্যায় জিসে তওবা কী
মিল গায়ি ফুরসাত
মুঝে তো গুনাহ কি ভি জিন্দেগী কাম হ্যায়।"
(কে সে প্রায়শ্চিত্তের পেয়ে গেল অবসর, আমার তো পাপ করার আয়ুটুকুও নেই।)


"জিন্দেগী এক আসুও কা জাম থা,
পিয়ে গায়ে কুছ, অওর কুছ ছালকা গ্যায়া।"
(জীবন ছিল এক অশ্রুর মদ, খানিকটা চুমুক দিলাম, বাকীসব গড়িয়ে গেল।)

অনুরোধের আসরে দায়ে পড়ে বাংলা অনুবাদ করতে হত আমায়। বাংলায় ভাল জানি না, হিন্দি জানব কী ছাই! তবুও চেষ্টা, সবিরাম। 

এই পোস্টটা দেয়ার পর শুরু হলো মন্তব্য। কী একেকটা মন্তব্য! বেঁচে থাকলে আনন্দনারায়ন মুল্লা তাঁর গাট্টি-বোঁচকা নিয়ে লম্বা দিতেন।

মুখফোড়
:
আবে হা... আপনাগো আদাব দিতে ইয়াদ আছিল না, আগে কইবেন না হা...আদাব আরজ হ্যায়।
"কাভি কাভি হাফপ্যান্ট কা ফিতে আটাক যাতা হ্যায়
কাভি কাভি হাফপ্যান্ট কা ফিতে আটাক যাতা হ্যায়
আওর কাভি কাভি লুঙ্গি কা ভি গিট্ঠু আচ্ছাসে নাহি বানতা।"
(কখনো কখনো হাফপ্যান্টের ফিতায় গিঁট লাগে, আবার কখনো কখনো লুঙ্গির গিট্টু ঠিকমতো লাগে না)।

রাসেল(........): কামিল এ ইবলিশ
"মুঝকো খুদা নে খুদ শারাব দিয়া পিনে কো,
মুঝকো খুদা নে খুদ শারাব দিয়া পিনে কো,
ম্যায় তো বেহেক গিয়া উস কে বাদ

কেয়া হুয়া মুঝে নেহি হ্যায় ইয়াদ
তকরুর দিয়া ফির জিনে কো।"
('তকরুর' কি বুঝি নাই। লেখক ভালো বলতে পারবেন। আমি এখানে অবিকল তুলে দিলাম।)

হিমু: আমিও কিছু শায়েরী কপচাবো বলে ঠিক করেছি। নাম নিলাম মাখমুর ভজঘটোপুরি...আদাব আরজ হ্যায়!

"থোরি শারাব পিয়ে যাতা তো খারাব নেহি হোতা
থোরি শারাব পিয়ে যাতা তো খারাব নেহি হোতা
থোরি শারারাত কিয়া যাতা, আগার র‌্যাব নেহি হোতা।"
(খানিক মদ্যপান করলে মন্দ হতো না, খানিকটা দুষ্টামী করা যেত যদি র‌্যাব না থাকত।)

সুমন চৌধুরী:

"ক্যায়সে ছুপেগী তু বুরকে পেহেন কে
ক্যায়সে ছুপেগী তু বুরকে পেহেন কে
পার্দে কি আন্দার হার এক পানছি যো নাঙ্গা হোতি হ্যায়।"

* আমাদের হিন্দি ভাষায় দখল যাচ্ছেতাই। ভাগ্যিস, তখন এটা মোসতাকীম রাহীর চোখে পড়েনি। বড়ো বাঁচা বেঁচে গিয়েছিলাম!

No comments: