Search

Saturday, September 3, 2022

লেখক...।

কারও-কারও ধারণা আমি এই-ওই ভাষা জানি। ভুল! আমি বাংলা ভাষাটাই ভাল জানি না! কেবল যে ভাষায় আমার মা কথা বলতেন সেই ভাষায় গুছিয়ে খানিকটা বলতে-লিখতে পারি। তাই বলে মমতা ব্যানার্জির ছড়া-কবিতার মর্ম অল্পও বুঝব না এমনটা নয়।
আহা, মধু-মধু! কী অসাধারণ শব্দের ছন্দ! একের-পর-এক শব্দের বুনন, ভাবায়...! মননে ছন্দের-পর-ছন্দ পাক খেয়ে ওঠে। গোল হয়ে ঘুরপাক খায়...। এই যেমন 'আজব ছড়া' গ্রন্হের ৩১ নম্বর পৃষ্ঠা:
 
বা ২৩ নম্বর পৃষ্ঠার এটা:
 
অথবা ১০ নম্বর পৃষ্ঠার এটা:
একটা অন্যটাকে ছাড়িয়ে যায়। এমন অজস্র উদাহরণ এখানে দেয়া যায় কিন্তু এটা সমীচীন হবে না। যাই হোক, এ ভারী আনন্দের, প্রথম বার, প্রথম বারের মত কলকাতায় বাংলা আকাদেমি পুরষ্কার চালু হয় এবং যথারীতি মমতা ব্যনার্জি সেই পুরষ্কার পান।  
'ওহনন্দবজর' (টাইপিং মিসটেক বিধায় এটা সুন্দরদৃষ্টিতে দেখা আবশ্যক) পত্রিকাতেও এটা পাবলিশ হয়েছিল।
 
পুরষ্কার দেওয়ার সময় মঞ্চে ছিলেন জয় গোস্বামী, সুবোধ সরকার, আবুল বাসার, শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়, বিকাশ সিংহসহ আরও অনেক প্রথিতযশা লেখক-কবি-সাহিত্যিক।  

No comments: