Tuesday, August 4, 2020

ভুলে যাওয়া জেদি-এক 'আগুনমানুষ'!


লেখক: Debabrata Chakrabarty (লেখকের লিখিত অনুমতিক্রমে প্রকাশিত)

"মোহাম্মদ সিং আজাদ ( উধম সিং)।
আজ থেকে ৮০বছর পুর্বে (৩১শে জুলাই ১৯৪০) জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকান্ডের খলনায়ক জেনারেল ডায়ারকে খোদ ইংল্যান্ডের মাটিতে প্রতিশোধ নেওয়ার দায়ে উধম সিংকে পেন্টোনভিলের জেলে ফাঁসিতে চড়ানো হয়।

সাম্প্রতিক প্রকাশিত পুলিশ রিপোর্ট অনুযায়ী দেখা যাচ্ছে, লন্ডনে পৌঁছানোর পুর্বে উধম সিং মেসোপোটেমিয়া, কিনিয়া, উগান্ডা, আমেরিকা এবং রাশিয়াতে ঘুরে ঘুরে ভারতীয় বিপ্লবীদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন, অস্ত্র যোগাড়ের জন্য। ইংল্যান্ডে পৌঁছানোর আগে তিনি 'মোহাম্মদ সিং আজাদ' নাম গ্রহন করেন, এমনকি সেই নামে পাসপোর্টও জোগাড় করেন। উধম সিং-এর 'মোহাম্মদ সিং আজাদ' নাম গ্রহন ছিল সু-পরিকল্পিত, তিনি বিশ্বাস করতেন কেবল মাত্র হিন্দু,  মুসলমান এবং বাকি ভারতীয়দের সম্মিলিত এবং যৌথ উদ্যোগেই ব্রিটিশকে ভারত ছাড়া করা সম্ভব।

আজকে ভারতবর্ষের যা পরিস্থিতি তাতে উধম সিং যদি মুহাম্মদ সিং আজাদ নাম নিয়ে ভারতে ফেরত আসতেন তাহলে নিশ্চয়ই কাফিল খানের মত জেলে পচতেন অথবা লিঞ্চিং এর শিকার হতেন। ব্রিটিশ প্রভুরা যেন তেন প্রকারে জেনারেল ডায়ারকে হত্যার বিচারের খবর যাতে কোন মতেই ভারতে না-পৌঁছাতে পারে তার চেষ্টার ত্রুটি রাখেনি। লন্ডনে যে-দিন উধম সিং-এর বিচার শুরু হয়, ঠিক সেইদিনই ভারতের গর্ভনর জেনারেল লন্ডনে সেক্রেটারি অফ স্টেট কে এক টেলিগ্রাম পাঠান, যাতে লেখা ছিল:

'We understand that during the trial the accused intends to pose as a martyr and indulge in heroics. We would be glad if steps are taken to secure that press in England do not report substantially and that Reuters only carry as brief and un sensational a summary as possible.'
বিচারে যখন উধম সিংকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় যে তিনি কেন ঘটনার এতদিন পরে জেনারেল ডায়ারকে হত্যা করলেন, উধম সিং এর জবাব ছিল:

'I did it because… he deserved it. He… wanted to crush the spirit of my people, so I have crushed him. For full 21 years, I have been trying to wreak vengeance. I am happy I have done the job. I am not scared of death. I am dying for my country.'
উধম সিং পাঞ্জাবের এক দলিত শিখ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন, পালিত হন অনাথ আশ্রমে, ১৯১৯ সালের জালিয়ানওয়ালাবাগের হত্যাকান্ডের দিনে তিনি জালিয়ানওয়ালাবাগের ময়দানে উপস্থিত ছিলেন, ভাগ্যক্রমে তিনি গণহত্যা থেকে বেঁচে যান। অগুনতি মৃতদেহের মধ্যে রক্তমাখা ২০বছর বয়সের উধম সিং এর মনে জেনারেল ডায়ারের প্রতি যে ঘৃণার জন্ম হয় তার অবসান হয় ২১ বছর পরে খোদ লন্ডনে। অগুনতি নিরীহ মানুষের মৃত্যুর জন্য দায়ী লন্ডনে নিরাপত্তার ঘেরাটোপে বসেও জেনারেল ডায়ার মোহাম্মদ সিং আজাদের বুলেটের হাত থেকে বাঁচতে পারেনি।
বিচারে উধম সিং বলেছিলেন:

'I do not care about the sentence of death…I am dying for a purpose...We are suffering from the British Empire…I am proud to die to free my native land and I hope that when I am gone…in my place will come thousands of my countrymen to drive you dirty dogs out; to free my country…you will be cleansed out of India. And your Britishempirealism will be smashed…I have nothing against the English people at all…I have great sympathy with the workers of England. I'm against the imperialist government. DOWN WITH Britishempirealism!'
আজ থেকে ৮০ বছর পুর্বে মোহাম্মদ সিং আজাদ নাম গ্রহনের মধ্যে দিয়ে উধম সিং যা বলতে চেয়েছিলেন যে হিন্দু, মুসলমান, শিখ ঐক্য ছাড়া ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদী শক্তিকে চুর্ন করা যাবে না, তা আজকের দিনে অতি গুরুত্বপূর্ণ সত্য যখন হিন্দুত্বার নামে দেশকে ভাগ করতে চাইছে কতিপয় স্বার্থপর শক্তি ।
শহীদ উধম সিং ওরফে মোহাম্মদ সিং আজাদ আপনি আমাদের হৃদয়ে বেঁচে থাকুন।"

No comments: