My Blog List

  • আলোর সঙ্গে... - ডা. রুমি আলম যে হুইলচেয়ারটা দিয়েছিলেন [১] এটা যে এমন কাজে লাগবে তা আমাদের আগাম জানা ছিল না। কোর্টের সামনে এমরান নামের এই মানুষটাকে উকালতির সূত্রে ফি রোজ নি...

Saturday, November 23, 2013

জননী!


আজ স্টেশনে দাঁড়িয়ে আছিআমার প্যান্টে টান পড়লে আমি ফিরে দেখি এই শিশুটিকেতার সোজাসাপটা প্রশ্ন, তোমার কাছে টেকা আছে?
আমি বললাম, থাকলে!
সে একগাল হেসে বলে, ভাত খামু
আমি বললাম, তোমার না কি?
তার ষ্পষ্ট উত্তর, রাজু মস্তান
তার বলার ভঙ্গি নামের বিশেষত্ব আমাকে চমকে দেয়আমি হাসি লুকিয়ে বলি, তুমি দেখি বিরাট মস্তান!
তার উত্তর,
আমি এইবার তাকে বললাম, তোমার মা কই?
সে একজন মহিলাকে দেখিয়ে বলে, ওইডা আমার মা
সে যে মহিলাকে দেখিয়ে দিলো একে আমি চিনিকারণ ওভারব্রিজের নীচে একে প্রায়ই শুয়ে থাকতে দেখেছিএর সঙ্গে কখনও কোনো শিশুকে দেখেছি বলে মনে করতে পারছি না

যে মহিলা স্টেশনে ভাত বিক্রি করে একে জিজ্ঞেস করলাম, এটা কি ওই মহিলার ছেলে?
তার কাছ থেকে যেটা জানা গেলএই রাজুর গল্পটা সহজ-সরল না, নেকখানি আঁকাবাঁকারাজুর মার মাথা এলোমেলো ছিলতার জন্মের শিশুটিকে (এই মহিলার ভাষ্য অনুযায়ী) মেরে ফেলে এরপর রাজুকে ফেলে কোথায় চলে গেছে কেউ জানে না! এরপর থেকে রাজু এই মহিলার কাছে থাকে, এই মহিলাটিকেই 'মা' ডাকে

আমি চুপ করে শুনে যাইতিনি আরও কীসব বলছিলেন কিন্তু আমি মনোযোগ দিয়ে শুনছিলাম নাকেবল আমার মাথায় ঘুরপাক খায়, রাজুকে এখন দেখভাল করছেন যে মহিলা তিনি নিজেই অসুস্থ! পূর্বেই বলেছি, প্রায় সময় আমি তাঁকে দেখেছি ওভারব্রিজের নীচে শুয়ে থাকতেকখনও জিজ্ঞেস করা হয়নি তাঁর দিন চলে কেমন করে? অথচ কী অবলীলায় এই শিশুটিকে তিনি কোলে তুলে নিয়েছেন

আমার মত ভদ্দরনোকের ভাবাভাবি করেই দিন পার হয়- এঁর এতো ভাবার সময় কোথায়!

No comments: