Saturday, April 5, 2014

সবজান্তা এবং এক কাপ চায়ে দু’কাপ চিনি!


উপজেলা নির্বাচন নিয়ে এই লেখাটা লেখার সময় আমি বলেছিলাম ‘...সত্যটা সময়ের জন্য তোলা থাকুক...’ [১]। এখন এখানে ছবিতে আমরা দেখতে পাচ্ছি উপজেলা নির্বাচনে একটি কেন্দ্রে আওয়ামীলীগের লোকজনেরা জাল ভোট দিচ্ছে। এটা নিয়ে প্রতিবাদের কারণে বিজিবি নির্বিচারে গুলি চালায়। যদিও বিজিবি মামলার কাগজে বলেছে এখানে গোলাগুলি হওয়ার এরা নিরুপায় হয়ে গুলি চালিয়েছে। কিন্তু আমরা জানি এখানে বিজিবি ব্যতীত অন্য কেউ গুলি করেনি!
আমি পূর্বের লেখায় বলেছিলাম, বিজিবি কি ফাঁকা গুলি ছুড়েছিল, পায়ে গুলি করার চেষ্টা করেছিল? উত্তর হচ্ছে, না! পরের যে ছবিটা এটায় স্পষ্ট হয় এরা গুলি করেছিল সরাসরি। এবং যেখানে গুলির দাগ এখানে ক্ষণিক পূর্বে এই বাড়ির দুইটা শিশু খেলা করছিল। ঘটনার সময় সেখানে বিজিবির গুলিতে একজন মারা গিয়েছিলেন (এই মৃত মানুষটার নামে মামলাও দেওয়া হয়েছে!)।
এই দুই শিশু মারা গেলে সংখ্যাটা হতো তিন। সংখ্যায় কী আসে যায়? আমাদের দেশে সবচেয়ে শস্তা হচ্ছে মানুষের প্রাণ- কেজি দরে পাওয়া যায়! যাহা এক তাহাই তিন..,।
আজকাল কোনো দলকে নিয়ে লিখলে লোকজনেরা দুম করে পিঠে অশ্লীল ছাপ মেরে দেন। এরও পূর্বে সংসদ সদস্য নির্বাচন নিয়ে আরেকটা লেখাটা দেওয়ার পর [২] অতি বিজ্ঞ একজন সবজান্তা বন্ধুর উত্তর আমাকে ‘মুঘধ করেছিল। আমার লেখাটার মন্তব্যে লিখেছিলেন, “বাঁশের কেল্লা'র ষ্ট্যাটাস পড়লাম বলে মনে হচ্ছে!”
চ্যাংড়া কিছু পোলাপান বুঝে, না-বুঝে মন্তব্য করে এতে আমি বিশেষ গা করি না। কিন্তু যতটুকু জানি এই মানুষটা আমার লেখার সঙ্গে পরিচিত। আমার লেখার ধাঁচ-ভঙ্গি তার জানার কথা। তারপরও তিনি আমাকে জামাতে ইসলামির মুখপাত্র বাঁশের কেল্লা সঙ্গে জড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন- প্রকারান্তরে শুইয়ে দেওয়ার চেষ্টা আর কী। বিষয়টা এখানেই শেষ হয়ে যাওয়ার কথা। কিন্তু তিনি আমার উত্তরের প্রতিউত্তরে যেটা লিখেছিলেন সেটা গোটা বিষয়টাকে আরও ঘোলাটে করে দিল। ওয়াল্লা, তিনি নাকি আমার বই-টইও পড়েন। পরের মন্তব্যে লিখেছিলেন, “...ছাপার অক্ষরে আপনার বেশ কিছু বই আছে বাজারে এবং আমি/ আমরা আপনার বইয়ের ক্রেতা”।
বাহ, তাহলে তো আমার, আমার লেখা সম্বন্ধে তার অতি উত্তম জানার কথা। আর কেউ কারও বই পড়লেই কী যে-কোনো, যা ইচ্ছা মন্তব্য করার যোগ্যতা অর্জন করেন! ভাল তো...!
এই হয়েছে এক জ্বালা- এরা সবাইকে নিজেদের মত মনে করেন। আশা করেন সবাই এদের মত হয়ে যাবে- এদের চোখ দিয়ে সব কিছু দেখবে, এদের মত করে ভাববে। অনেকটা একজন মাতালের মত যেন সে স্থির আর গোটা বিশ্ব নড়ছে।
সে নাহয় বুঝলুম কিন্তু আমি যে জামাতে ইসলামি-বাঁশের কেল্লার প্রতি অনুরক্ত, ওদের পেইড ব্লগার এটা তো আমার জানা নেই অথচ দেখো কান্ড তিনি জানেন! তিনি জানলেন কেমন করে? এটা তো একজন সবজান্তার জলজ্যান্ত নমুনা বটে! এমন লোকজন আমার এফবি ‘বনডু’ এটা জেনে আমার গা কাঁপে। খোদা, এ তো আমার ভাঙ্গা (এফবিতে আমার অতি সাধারণ প্রোফাইলের) ঘরে চাঁদের আলো! এমন মানুষের জন্য আমি অতি তমিজের সঙ্গে চিঁ চিঁ করে বলি, আমার ‘বনডু’ হওয়ায় আপনার এই বদান্যতা শোধ করি কেমন করে!
অবশ্য এই ধরনের সবজান্তা মানুষের জন্য জ্ঞানী মানুষদের ভারী-ভারী কথা আছে। বেচারা, সে রাস্তায় না-হেঁটে আমি আমার নিজস্ব ভঙ্গিতে বলি, ‘এক কাপ চায়ে দু’কাপ চিনি’!
১. https://www.facebook.com/723002334/posts/10152011791682335
২. https://www.facebook.com/723002334/posts/10151863854097335

*ঋণ...প্রথম ছবি: মহিউদ্দিন মিশু

1 comment:

Deshi Virus said...

ভাই এইসব আমি যেমন জানি তেমনি দেশের প্রত্যেক টি জনগনই জানে যে উপজেলা নির্বাচনের শেষের চারটির কারচুপির কথা। এইসব বলে লাভ নাই। তবে আপনার লেখা টা খুব ভাল লাগলো।