Wednesday, August 21, 2013

মন্ত্রী মহোদয়ের আগমণ, শুভেচ্ছা স্বাগতম!

রেল-মন্ত্রী আসবেন। ‘ডিজেল ইলেকট্রিক মাল্টিপল ইউনিট’ বা 'ডেমো ট্রেন' উদ্বোধন করবেন! এই ডেমো-ট্রেন নিয়ে যাত্রীদের বিশেষ উচ্ছ্বাস নেই কারণ ট্রেনটা শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত না, অথচ হওয়ার কথা। এমন না যে যাত্রীদের শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ট্রেন ব্যতীত চলে না কিন্তু এই ট্রেনের ইঞ্জিন নীচে হওয়ার এবং এর কাঠামোর কারণে ভেতরে অত্যাধিক গরম থাকে। যাত্রা হয়ে উঠে অসহনীয়!
যারা এই ট্রেনগুলো কেনার জন্য দলবল সহকারে চৈনিক দেশে গিয়েছিলেন তারা নাকি পরে বলেছেন, তারা শীতকালে গিয়েছিলেন বলে বিষয়টা বুঝতে পারেননি!
যাই হোক, সে ভিন্ন প্রসঙ্গ!

তো, রেল-মন্ত্রী মহোদয় এই ট্রেন উদ্বোধন করবেন। চারদিকে সাজ-সাজ রব! ট্রেনটাকে সাজানো হয়েছে 'বিবাহ-কন্যার' মত। ভালই, সেটা বিষয় না। বিষয় হচ্ছে, পুরো জেলা শহরের যত 'আপসার' সাহেব আছেন তারা সবাই চলে এসেছেন এই ছোট্ট উপজেলায়।
গোটা জেলায় আজ অফিসের কোনো বড় কর্তাকে পাওয়া যাবে না। এখানকার খাদ্য নিয়ন্ত্রক জানালেন, 'ডিসি, ফুড' জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকও চলে এসেছেন। এখানে খাদ্য নিয়ে কী সমস্যা বুঝতে পারিনি কারণ এমন না যে যাত্রীদেরকে এক পোঁটলা করে খাদ্য দেওয়া হবে!
 

এখানকার হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্সও চলে এসেছে। একজনই চালক অতএব আজ কোনো রোগীর মুমূর্ষু হওয়ার উচিত হবে না কারণ মন্ত্রী মহোদয় এখান থেকে না-যাওয়া পর্যন্ত কারো সাধ্য নেই অ্যাম্বুলেন্সের চাকা এক চুল নাড়ায়! নিয়ম ভেঙ্গে কেউ ভয়ানক অসুস্থ হয়ে হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্সের প্রয়োজন দেখা দিলে এর দায়-দায়িত্ব নীচে কারো উপর বর্তাবে এটা বলাটা সমীচীন হবে না। এই দায়িত্ব কেবল আকাশলোকের বাসিন্দার! 
 
আজ সমস্ত স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীও রেলস্টেশনে এই উদ্বোধন অনুষ্ঠানে চলে এসেছে। ক্লাশ ফেলে এখানে এদের কী কাজ কে জানে...!