Saturday, January 28, 2012

মিডিয়ার অপরাধ এবং মুক্তিযুদ্ধে 'জনৈক সালাউদ্দিন'

­দানবীর নূতন সিংকে নিয়ে একটা লেখা লিখেছিলাম [১]। এই লেখাটা প্রথমে লেখা হয়েছিল অন্য একটি ওয়েবসাইটে, ২০০৭ সালে পরে আমার নিজস্ব সাইটে ২০১০-এ।
আমাদের মুক্তিযুদ্ধে নূতন সিংহের হত্যা আমার মনে অসম্ভব দাগ কেটেছিল অন্য কারণে। এই মানুষটিকে যখন হত্যা করা হয় তখন তিনি প্রার্থনারত অবস্থায় ছিলেন। এবং অতি ঘৃণ্য এই কাজটা করেছিল তারাই যারা ধর্মের ঝান্ডা টিকিয়ে রাখার জোর দাবী জানিয়ে আসছিল! সাচ্চা মুসলমান!


নূতন সিংহকে নিয়ে আমার ওই লেখার উৎস কি ছিল? ১৯৭২ সালের দৈনিক বাংলার প্রতিবেদন। ভাবা যায়! ১৯৭২ সালেই নূতন সিংহকে নিয়ে লেখা হয়। পরে দৈনিক বাংলার ওই প্রতিবেদনের তথ্য-উপাত্ত যুক্ত হয়েছিল বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের দলিলে।
উত্তম, যুদ্ধের অল্প সময়ের মধ্যেই আমরা জেনে গিয়েছিলাম নূতন সিংহের মৃত্যু কেমন করে হয়েছিল। এখান পর্যন্ত সমস্যা নেই। তাহলে সমস্যা কোথায়?
সমস্যাটা হচ্ছে, ওই লেখা পড়ে আমরা জানতে পারি:
"...ছেলেরা আগেই পালিয়ে গিয়েছিল। বাবু নূতন সিংহ তখন মন্দিরে প্রার্থনা করছিলেন। জনৈক সালাউদ্দিন তাঁকে সেখান থেকে টেনেহিঁচড়ে বাইরে নিয়ে এসেছিল। তাঁর চোখের সামনে মন্দিরটি উড়িয়ে দিয়েছিল। তারপর তাঁকে হত্যা করা হয়েছিল নৃশংসভাবে। মেজর তিনটি গুলি করার পরও- সালাউদ্দিন রিভলবারের গুলি ছুঁড়েছিল নূতন বাবুর দিকে। তিনি লুটিয়ে পড়েছিলেন। তেমনি মুখ থুবড়ে পড়েছিলেন তিন দিন।...।"

পাকসেনাকে সহায়তা করেছিল, জনৈক সালাউদ্দিন। গোল বাঁধিয়েছে জনৈক সালাউদ্দিন। এই জনৈক সালাউদ্দিনটা কে? অন্তত এই লেখা পড়ে এটা অনুমান করা আমাদের পক্ষে দুস্কর। অন্তত পরের প্রজন্মের জন্য।
ঠিক যেমনটা আমরা দেখতে পাই ভাগিরথী হত্যার সঙ্গে জড়িত জনৈক রাজাকারের বেলায় [২]। ওই লেখায়ও কিন্তু আমরা ওই রাজাকারের পরিচয় খুঁজে পাইনি।

অবশ্য এ আমাদের অপার সৌভাগ্য এই জনৈক সালাউদ্দিন-এর খোঁজ আমরা পেয়ে গেছি। হালে মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারে গঠিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল যে সমস্ত তথ্য উঠে এসেছে [৩] :
"...নূতন চন্দ্র সিংহের সঙ্গে কিছুক্ষণ কথাবার্তা বলে চলে যান। ১০-১৫ মিনিট পর সাকা চৌধুরী পাকিস্তানি সেনাদের নিয়ে আবার সেখানে যান  এবং মন্দিরে প্রার্থনারত নূতন চন্দ্র সিংহকে টেনে-হিঁচড়ে মন্দিরের সামনে এনে হত্যার নির্দেশ দেন।...।"
এই সাকা চৌধুরীই যে সালাউদ্দির কাদের চৌধুরী এটা বলার আর অবকাশ রাখে না।

কিন্তু ওই জনৈক সালাউদ্দিনই যে সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী এই তথ্যটা কি ১৯৭২ সালে দৈনিক বাংলার জানা ছিল না? তর্কের খাতিরে ধরে নিলাম সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী তখন তেমন আলোচিত কোনো ব্যক্তি ছিলেন না তাই হয়তো ওভাবে লেখা হয়েছে। বেশ, কিন্তু এই সালাউদ্দিনের বাবা যে আলোচিত ফকা চৌধুরী বা ফজলুল কাদের চৌধুরী এটাও কি দৈনিক বাংলাজানা ছিল না? তাহলে? কেন তখন কেন এমন অসম্পূর্ণ বিকলাঙ্গ এক তথ্য দেয়া হলো- 'জনৈক সালাউদ্দিন'!
আমার মতে, ওই সময় প্রিন্ট মিডিয়াগুলো প্রকারান্তরে এক অন্যায় করেছিল। অসম্ভব গুরুত্বপূর্ণ এই সব প্রতিবেদনে অবহেলা দেখিয়ে। যার ফল আমরা ভোগ করেছি বছরের-পর-বছর ধরে। বিভিন্ন ধরনের ভ্রান্তির মধ্যে ঘুরপাক খেয়েছি অহেতুক।
এ এক ক্ষমাহীন অপরাধ!

 সহায়ক সূত্র:
১. দানবীর নূতন সিংহ, জনৈক সালাউদ্দিন: http://www.ali-mahmed.com/2010/09/blog-post_30.html
২. একজন ভাগিরথী এবং অজ্ঞাতনামা রাজাকার: http://www.ali-mahmed.com/2012/01/blog-post_16.html
৩. সাকা চৌধুরীর বিরুদ্ধে...: http://www.eprothomalo.com/index.php?opt=view&page=1&date=2012-01-16#

No comments: