Tuesday, March 29, 2011

দেশের জন্য ভোট ভিক্ষা চাইছি

গতবার আমার কাছের মানুষেরা আমার উপর প্রচন্ড বিরক্ত হয়েছিলেন। তাঁরা পরামর্শ দিয়েছিলেন আমি যেন আমার পক্ষে বিভিন্ন জায়গায় ভোট দেয়ার জন্য প্রচারণা চালাই। আমি সযতনে এড়িয়ে গিয়েছিলাম। আজ আর নাম বলে লজ্জা দেই না একজন ফোনে বলেছিলেন, আপনি ঘাড় ত্যাড়া। ঘুরিয়ে বলার চেষ্টা, আপনি বেতমজি। আজ বুকে হাত দিয়ে বলি বিষয়টা এমন না। তখন আমার কেবল মনে হচ্ছিল আমি তো আর রাজনীতিবিদ না যে জনে জনে ভোট চেয়ে বেড়াব। অবশ্য এই ভাবনাটা আমি আজও লালন করি।

তাহলে আজ কেন ভোট চাইছি, হোক না অন্যের জন্যই! আমি দেশপ্রেম- ট্রেম এই সব জটিল কথা বুঝি না, বোঝার জন্য কাতরতাও প্রকাশ করি না। আমি ডিগবাজী দিতে পারি না কিন্তু কোথাও আমার দেশের কথা ঘুরেফিরে আসবে এমনটা নিশ্চিত হলে একটা কেন একশোটা ডিগবাজী দেব। প্রায় অসম্ভব তবুও ডিগবাজী দেয়ার চেষ্টা করব। কেন এই অসম্ভব চেষ্টা করব? আমি জানি না!

ব্লগস্ফিয়ারের লেখা নিয়ে 'ববস' আবারও আয়োজন করেছে। এদের বিভিন্ন ভঙ্গি নিয়ে অনেকের আপত্তি থাকতে পারে (যেমন আমার মনে হয়েছে, ফেসবুক এবং টুইটারে লগইন করা নিয়ে। ফেসবুক, টুইটার যেন আসমানী কিতাব যে প্রত্যেকের এই একাউন্ট থাকবে, থাকবেই! আমার কাছে বিষয়টা বিরক্তিকর মনে হয়েছে।)।
এমনিতে অর্জুনের মত আমি আকাশ-পাখি দেখি না, দেখি কেবল পাখির চোখ। আমি দেখি আমার দেশ, আমার ভাষা সগর্বে দাড়াচ্ছে কিনা? এই কাজটা কারা করছে তাতে কী আসে যায়!
'বাংলাদেশ ওমুক দেশের কাছে বিক্রি হয়ে গেছে', আমি রাজনীতিবিদ নই তবুও জোর দিয়ে বলতে পারি এদের কাছে তো আর দেশকে কেউ বিক্রি করে দিচ্ছে না তাহলে অযথা, অহেতুক ক্ষোভের উৎস কী! বরং কারও-না-কারও কল্যাণে আমাদের ভাষাটা পরিচিত হচ্ছে, অসুবিধা কোথায়! এছাড়া আমার দেশের তো কোন লোকসান হচ্ছে না। ওখানে হিন্দি নাই, উর্দু নাই কিন্তু বাংলা ভাষাটা আছে। এটা ভাবতেই তো কেমন অন্য রকম লাগে! 

Best Blog-এ আছেন 'সাবরিনা'। এখন পর্যন্ত ২৫% নিয়ে তিনি আছেন দ্বিতীয় স্থানে। মাত্র ১১% পিছিয়ে আছেন। আমরা খানিকটা ঝাপিয়ে পড়লে তাঁকে জিতিয়ে দেয়া সম্ভব। আমি এই কষ্টের কথা ভুলব না গতবার সামান্য চেষ্টা করলেই মোস্তফা কামালকে [১] আমরা জিতিয়ে দিতে পারতাম। (এই অভাগা মানুষটার কথা আমরা মনে রাখিনি। ডয়চে ভেলেও না!)
সাবরিনা, 'ঈশ্বরের বিশেষ সন্তান' [২], যে মানুষটা নিজে নিজে মোবাইল ফোনটাও ধরতে পারেন না তিনি আক্ষরিক অর্থেই কী-বোর্ড নিয়ে অন্যের জন্য লড়াই চালিয়ে এসেছেন। এখন আমি এই মানুষটাকে কেবল 'ঈশ্বরের বিশেষ সন্তান' হিসাবেও দেখছি না, দেখছি কেবল দেশটাকে, আমার ভাষাকে। 

Special Topic Award Human Rights-এ ৩৩% নিয়ে প্রথম স্থানে আছে 'আদিবাসী ব্লগ'। আদিবাসী, এই সব জটিল কথা বুঝি না। আমি এঁদের বলি আদিমানুষ। এই সব আদিমানুষদের, প্রকৃতির কাছাকাছি থাকা মানুষদের প্রতি বিভিন্ন সময়ে আমরা যে অন্যায় করেছি [৩] এই নিয়ে এখন আর কুতর্ক যাই না। কিন্তু এঁদের কোন প্রতিনিধিকে আমি যেদিন ওখানে দেখব সেদিন অন্তত এই প্রশান্তিটুকু পাব যে খানিকটা পাপমোচন হয়েছে।

অন্য ক্যাটাগরিতেও আমরা চেষ্টা করলে এগিয়ে যেতে পারি। Reporters Without Borders Award-এ আবু সুফিয়ান ২৭%। দ্বিতীয় স্থানে যেটা সেটাও ২৭%!  ...Best Social Activism campaign-এ অমি রহমান পিয়াল পিছিয়ে আছেন ৬%।

নিজেকে আমার ঢের চেনা হয়ে গেছে। এঁদের আমি যেদিন ওই মঞ্চে দেখব সেদিন আমি যেখানেই থাকি না কেন হাউমাউ করে কেঁদে ফেলব এতে কোন সন্দেহ নেই। অন্যরা চোখ বড় বড় করে দুম করে বলে বসবে, 'আশ্চর্য, আপনি এমন করছেন কেন? আপনার সমস্যাটা কী'!
আহা, তখন আমি বুঝি এটা না-বলে বসে থাকব, 'কেন, এই দেশের সংবিধানে কাঁদার জন্য কি তোমাদের অনুমতির প্রয়োজন হয়'?

*ভোট দিতে হবে যেখানে: http://thebobs.dw-world.de/en/nominations/?cat=1

সহায়ক সূত্র:
১. মোস্তফা কামাল, আমি দুঃখিত: http://www.ali-mahmed.com/2010/04/blog-post_18.html
২. ঈশ্বরের বিশেষ সন্তান...: http://www.ali-mahmed.com/2010/05/blog-post_03.html
৩. আদিমানুষ...: http://www.ali-mahmed.com/2010/02/blog-post_23.html