Thursday, December 30, 2010

এই দেশের স্টিয়ারিং যাদের হাতে

পূর্বের এক লেখায় লিখেছিলাম [১], "এটা একজন উপজেলা নির্বাহী অফিসারের ভিজিটিং কার্ড। কার্ডটার হুবহু স্ক্যান করে দিলাম। কেবল নীতিগত কারণে ফোন নাম্বার এবং ইমেইল বাদ দিয়ে। ভাঁজ করা যায় এমন দু-পাতার এই কার্ডে দেখা যাচ্ছে তিনি M.Phil এবং Ph.D এই দুইটা ডিগ্রিই ব্যবহার করেছেন। তবে আমরা এটাও জানতে পারছি Self-withdrawn after one year. 

ভাল-ভাল। তাহলে কার্ডে আমার নামের সঙ্গে আইন উপদেষ্টা এলএলবি অমুক এটা লিখতে সমস্যা কোথায়! আমিও যে কি অবশ্য ব্রাকেটে Self-withdrawn after one year. বা নিয়ার এবাউট... এটা অবশ্যই উল্লেখ থাকবে।  :)
পত্রিকায় জানা যাচ্ছে, এই ইউএনও সাহেবের দেশের বাড়ি আখাউড়ায়। তার একজন ভাই এখানকার মেয়র প্রার্থী।  ভাইয়ের পক্ষে এক জনসভায় তিনি বলেছেন, "...আমি সাভারের ইউএনও। আমার কাছে গিয়ে কেউ কোন দিন খালি হাতে ফিরে আসেনি। সমাজসেবার জন্যই ভাইকে ঢাকায় না নিয়ে আপনাদের পাশে রেখেছি..."।
বুকটা জুড়িয়ে যায় কিন্তু এই মানুষটার কাছে গিয়ে কেউ খালি হাতে ফিরে আসেনি এটা বুঝতে খানিকটা সমস্যা হয়। এর মানে কী! লোকজন ওখানে কি চাইতে যায়, আর কি-ই বা আঁজলা ভরে নিয়ে আসে? যাক, সেটা এই ইউএনও সাহেব এবং লোকজনের সমস্যা।

সম্প্রতি ইনি যেটা করেছেন তাও পত্রিকায় এসেছে [২], "আখাউড়া নির্বাচনী প্রচারণায় খোদ ইউএনও। সাংবাদিক অবরুদ্ধ, ক্যামেরা ছিনতাই"। এ নিয়ে বিস্মিত হওয়ার কিছু নাই। যার এমন একটা ভিজিটিং কার্ড তাকে নিয়ে নতুন করে বিস্মিত হওয়ার কিছু থাকে না।
কেবল আফসোস, এই দেশের চালিকাশক্তি এদের হাতে...!      

সহায়ক সূত্র:
১. বৈদেশ পর্ব...: http://www.ali-mahmed.com/2010/10/blog-post_20.html
২. দৈনিক যুগান্তর: http://ejugantor.com/2010/12/30/index.php