Saturday, June 5, 2010

প্রিন্ট মিডিয়ার আয়োজন করে কান্না!

সকাল থেকে একের পর এক ফোন, মেইল। এই দেশের সেরা দুই সন্তানকে সম্মান দেখানো হয়েছে [১]। আগামী প্রজন্মের কাছে একটা সু-উদাহরণ তুলে ধরার চেস্টা করা হলো, ইত্যাদি ইত্যাদি। কিন্তু কোন পত্রিকায় এটার খবর দেখলাম না!

তাঁদেরকে আমি পাল্টা প্রশ্ন করি, পত্রিকায় এই খবরটা আসার সঙ্গে আমাদের এই উদ্যোগের সম্পর্ক কি?

তাঁরা তবুও আমাকে ছাড়েন না। আপনার এলাকার পত্রিকাগুলোর সাংবাদিকরা এটার গুরুত্ব বুঝতে পারল না কেন?
এঁদেরকে বোঝাতে গেয়ে আমার গলদঘর্ম অবস্থা হয়। এলাকার বেচারা সাংবাদিকদের দোষ দিয়ে লাভ নাই। ঢাকায় মূল অফিসে এসিতে বসে থাকা লোকজনদের আছে আঞ্চলিক প্রতিনিধিদের প্রতি সীমাহীন তাচ্ছিল্য। আমার জানা মতে, বিভিন্ন পত্রিকার সাংবাদিক এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। অনুমান করি, তাঁরা অতি উৎসাহ নিয়ে সংবাদও পাঠিয়েছেন।

কিন্তু তখন আমি হাসি গোপন করেছিলাম। আমি জানি, পত্রিকাগুলো এটা ছাপবে না কারণ এটা ডিসেম্বর মাস না। পত্রিকাওয়ালাদের একটা নিয়ম আছে, এরা ডিসেম্বর এলে মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে। কাঁদতে কাঁদতে এদের অন্তর্বাস পর্যন্ত ভিজে যায়! এদের ভাষায় ডিসেম্বরে পাবলিক এই সব খায় ভালো। প্রিন্ট মিডিয়া নামের বিবেক আমাদের এটাই শিখিয়ে যাচ্ছে, ডিসেম্বর এলেই মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কথা বলে বলে মুখে ফেনা তুলে ফেলতে হবে।

এরাই আমাদের শেখায় কেমন করে বিশেষ মাসে আয়োজন করে কাঁদতে হয়। এদের কাছ থেকে শিখে শিখে আমরা সমস্তটা বছর বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামালের সমাধিস্থলে গু-মুতের কাঁথা শুকাব এবং ১৬ ডিসেম্বর এলেই বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামালের সমাধিস্হল ধুয়েমুছে চকচক করে ফেলব, আকাশে গুলি ছুঁড়ে সম্মান জানাব। কামান সহজলভ্য হলে তোপ দাগব।

প্রিন্ট মিডিয়া ঘটা করে আমাদের জানাবে, কোন কোন মুক্তিযোদ্ধা ঠেলা চালাচ্ছেন, চার দোকানে পানি টানছেন, কোন মুক্তিযোদ্ধা রিকশা চালাচ্ছেন। 
এদের কাছ থেকে শিখবেন আমাদের অতি শিক্ষিত (!) আমলারা। এরা উক্য চিং-[২] এর মত দুর্ধর্ষ মুক্তিযোদ্ধার হাতে ১০০ টাকা ধরিয়ে দিয়ে সম্মান দেখাবেন!

এখানে যেসব বাচ্চারা অংশগ্রহন করেছিল তাদের মধ্যে একজন বাচ্চা লিখেছে, "স্বাধীনতার চেতনা থাকুক প্রতিদিন"। 
যেটা বিচারকদেরকে প্রভাবিত করেছিল এই বাচ্চাটাকে মার্কস দেয়ার ব্যাপারে। এই বাচ্চাটা এখন পর্যন্ত যা শিখেছে তা আমাদের অতি শিক্ষিত (!) মিডিয়া এখনো শিখতে পারেনি। আফসোস!

যদিও প্রিন্ট মিডিয়া না তবুও redtimesbd.com [৩] খবরটা ছাপিয়েছে। তাঁদের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা।

সহায়ক লিংক:
১. স্বপ্ন, তিন: http://www.ali-mahmed.com/2010/06/blog-post_4596.html
২. উক্য চিং: http://www.ali-mahmed.com/2007/06/blog-post_8752.html
৩. redtimesbd.com: http://redtimesbd.com/details.php?cat=4&id=14420