Thursday, May 13, 2010

ডিজিটাল চিকিৎসা!


কোথাও গেলেই আমার মাথা ব্যথার উপসর্গ হয়। কোথাও গিয়েছি অথচ মাথা ব্যথা কমাবার অষুধ প্যারাসিটামল আমার সঙ্গে নাই এমনটা কখনো হয় না।

এই নিয়ে একবার দমদম এয়ারপোর্টে দামামা বেজে গেল। সালটা সম্ভবত ৮৪। সঙ্গে আমার একগাদা প্যরাসিটামল, কারণ লম্বা সময়ের জন্য যাওয়া, আবেগীয় কারণে। আমার পিতৃপুরুষের ভিটেমাটি [১] দেখব, সমগ্র ভারতে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা প্রচুর আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে দেখা করা এবং ওখান থেকে নেপাল যাওয়া।

এয়ারপোর্টে এক ভদ্রমহিলা আমাকে কোন অবস্থাতেই প্যারাসিটামল নিতে দেবেন না। কাহিনীটা আসলে অন্য ছিল। এই চোট্টিন (চোট্টার বউ চোট্টিন) মহিলা অনেকের কাছ থেকে এটা-সেটা, টাকা রাখছিলেন। 
আমি খুব আগ্রহ নিয়ে দেখছিলাম কারণ এর পূর্বে কোন মহিলা ঘুষখোর আমি দেখিনি! এই মহিলা আমার বড় বড় চোখ করে তাকিয়ে থাকাটা পছন্দ করছিলেন না। দৃষ্টিতে ছিল বিষ!

আমার উচিৎ ছিল, চোখ নামিয়ে ওখান থেকে খানিকটা সরে আসা। এটা না করায় এটাই কাল হলো। চোট্টিন মহিলা শোধ নিয়েছিলেন প্যারাসিটামল নিতে না দিয়ে। হোটেলে গিয়ে অসহনীয় মাথা ব্যথায় কাবু হয়ে পড়েছিলাম। 
আফসোস, এখন হলে এই মহিলাকে মধুর গলায় বলতাম, দিদি, আপনাকে টাকা দেব [২], নেবেন? নেন না, নেন। ঘুষ [৮] জিনিসটা খারাপ না...।

আজ থেকে ভাবছি মাথা ব্যথা হলে, মাথা ব্যথা কমাবার চেষ্টা করব না, স্রেফ মাথাটা কেটে ফেলব। এটাই সহজ সমাধান। এই চমৎকার বুদ্ধিটা আমি জানতাম না, আজ জানলাম! আমার মনে বড়োই আনন্দ! অরিজিনাল গাধা আমি ব্যতীত এই দেশের সবাই কোন-না-কোন দল [৩] করেন এবং এই কারণে এখন থেকে আমার মতো একজন দলছুট মানুষ এই সরকারের দল করব বলে ঠিক করেছি। 
মাথা ব্যথা নামের অসুখ সমস্যা সমাধানের জন্য আমি যারপর নাই আনন্দিত। কত্তো সহজ, উঠল মাথা ব্যথা, ব্যস, এক কোপে কল্লা নামিয়ে কল্লাটা হেলমেটের ন্যায় কায়দা করে, হাতে করে কোমরের পাশে ধরে রাখা [৪]। বিমানবাহিনীর পাইলটদের দেয়া পোজ আর কী!

সরকার ৫টি বেসরকারি ল্যান্ডফোন কোম্পানির লাইসেন্স চিরতরে বন্ধ করে দিয়েছেন। এর আগে একে একে এদের সমস্ত কার্যক্রম বন্ধ [৫] করে দেয়া হয়েছিল। এগুলো হচ্ছে, র‌্যাংকসটেল, পিপলসটেল, ন্যাশনাল ফোন, ওয়ার্ল্ডফোন, ঢাকা ফোন। এই ৫টি কোম্পানির বিনিয়োগ হচ্ছে প্রায় ২০০০ কোটি টাকা। গ্রাহকসংখ্যা প্রায় ৬ লক্ষ। আনুমানিক ৫০০০ কর্মী। একেকজন কর্মীর মানে একেকটা পরিবার; নানা-নানি, দাদা-দাদি ধরলে প্রায় ৫০ হাজার মানুষের বাঁচা-মরার প্রশ্ন।

আচ্ছা, এই ৬ লক্ষ গ্রাহক এখন কি করবেন? গ্রামীন ফোনের গ্রাহক হলে কেমন হয়? ভালই হয়, কারণ এই রক্তচোষা অপারেটরের কল-রেট সবচেয়ে বেশী!
অতি দেশপ্রেমিক এই কোম্পানির পক্ষে [৬], এই সব নিয়ে আরেক দেশপ্রেমিক আমাদের মতিউর রহমান সাহেব একটা সম্পাদকীয় লিখবেন বলে আশায় আশায় আছি। তার পূর্বে এই নিয়ে তিনি আরেকটার শপথের আয়োজন করলে ভাল হয় [৭]।  

এই ৫ কোম্পানিকে যে কারণে (অবৈধ কল ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ) এই শাস্তি দেয়া হচ্ছে ঠিক একই অভিযোগে গ্রামীন ফোনসহ অন্য অপরেটরদেরকেও শত-শত কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছিল। 
আচ্ছা, একই কান্ড গ্রামীন ফোন করলে তাদের জন্যও তো একই শাস্তি হবে, না? হাসি চেপে বলি, মারা যাওয়ার পূর্বে এটা দেখে যাওয়ার খুব শখ আমার! শখটা পূরণ হবে এই আশায় থেকে অন্তত হাসতে হাসতে যে মারা যাব এতে কোন সন্দেহ নাই।

তবে সরকার বাহাদুরের এই ডিজিটাল বাহাদুরিটা লা জবাব! সরকার বাহাদুরের কাছে আমাদের জোর দাবী, দেশময় রটিয়ে দেয়া হোক, হাসপাতালে হাসপাতালে এই ফরমান জারী করা হোক, যেসব রোগি ভর্তি হবে এদের কালবিলম্ব না করে মেরে ফেলা হোক। কী সহজ চিকিৎসা! আমার মতো যাদের মাথা ব্যথা তাদের মাথা কেটে ফেলা হোক। জয় ডিজিটাল, জয় ডিজিটালবাংলা! 

সহায়ক লিংক:
১. ব্যবচ্ছেদ: http://www.ali-mahmed.com/2009/12/blog-post_15.html
২. ঘুষখোর ব্যাংকের গভর্নর: http://www.ali-mahmed.com/2010/03/blog-post_3654.html
৩. স্যারদের দলবাজি: http://www.ali-mahmed.com/2009/12/blog-post_19.html
৪. ভূত দিবস: http://www.ali-mahmed.com/2008/08/blog-post_21.html
৫. ডিজিটাল বাঘের মিউমিউ: http://www.ali-mahmed.com/2010/03/blog-post_21.html
৬. সাপ এবং বেনিয়া: http://www.ali-mahmed.com/2009/03/blog-post_28.html
৭. মতি ভাইয়ার শপথ: http://www.ali-mahmed.com/2010/02/blog-post_19.html 
৮. ঘুষ: http://www.ali-mahmed.com/2010/02/blog-post_26.html