Friday, April 16, 2010

The BOBs-এ আমার সাইটটির 'সেরা বাংলা ব্লগ পুরষ্কার'

গ্লোবাল ভয়েসেস-এর সাক্ষাৎকারে আমি বলেছিলাম, আমি পেছনের কাতারের মানুষ, সামনে চলে এলে সব কেমন এলোমেলো হয়ে যায়। নিরিবিলিতে থাকা মানুষগুলো যখন হইচই-এর মধ্যে চলে আসে তখন এদের সব গুলিয়ে যায়!

'ডয়েচে ভেলের' সাক্ষাৎকারে আমি আন্তরিকতার সঙ্গেই বলেছিলাম, যেখানে আমি চলে এসেছি কিন্তু এমন অনেক ব্লগার আছেন যারা হয়তো বিভিন্ন কারণে এখান পর্যন্ত আসতে পারেনি। এদের লেখার হাত, ভাবনার প্রসারতা এতোটাই শক্তিশালী আমার ক্ষমতা থাকলে এঁদের হাত সোনা দিয়ে বাঁধাই করে দিতাম। এই দেশের অনেক শক্তিশালী লেখক এটা কল্পনাও করতে পারবেন না!  


যাই হোক, আমি অভিভূত, হতভম্ব! কেবল এই জন্য না যে The BOBs-এ 'সেরা বাংলা ব্লগ পুরষ্কার'-এ  আমার এই সাইটটি প্রথম হয়ে গেছে। অবশ্যই এর জন্য আছে গভীর আনন্দের পাশাপাশি জুরিদের প্রতি কৃতজ্ঞতা।

আমার নিজের আনন্দকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে, অন্য ভাষার লোকজনের কাছে বাংলা ভাষা, বাংলাদেশ এই শব্দটা বারবার ঘুরেফিরে এসেছে, এই আনন্দ কোথায় রাখি? বাংলা ভাষার প্রতি এই যৎসামান্য ঋণ শোধের চেষ্টা- এমন দিনে মরতেও সুখ, নাই-বা হলো জ্যোৎস্না রাত!

কিন্তু আমাকে যেটা নাড়িয়ে দিয়েছে সেটা হচ্ছে ব্যবহারকারীর ভোট। একজন দু-জন মানুষ না, অসংখ্য মানুষ আমার মত একজন দলছুট মানুষের প্রতি যে অযাচিত মমতা-ভালবাসা দেখিয়েছেন এই মমতা আমি ফেরত দেই কেমন করে!

এরা আমাকে মমতার ব্রক্ষ্মাস্ত্রে কোনঠাসা করে ফেলেছেন, ব্রক্ষ্মাস্ত্র নাকি একবার ছুঁড়লে ফেরত যাওয়ার কোন উপায় নেই। এই মমতা ফেরত দেয়ারও কোন উপায় আমার জানা নেই, জানা থাকলে ভালো হতো।