Thursday, August 12, 2010

জিরো ক্রেডিট+ন্যানো ক্রেডিট=

নুরুন নাহার।

অনেকটা ঠিক তেমনই যেমনটা আমাদের সো কলড বিবেক ওরফে মিডিয়া বৈদেশে এই দেশের মার যেমন ছবি তুলে ধরেন। অপুষ্টিতে ভোগা খালি পায়ের একজন মহিলা; কোলে হাড়-জিরজিরে দু-একটা সন্তান।
আমাদের বিবেক নামের মিডিয়া লালমুখো সাহেবদের কাছে এই দেশের একজন মাকে এমন করে উপস্থাপন করতে ভারী আমোদ বোধ করেন। বা রিলিফের এক প্যাকেট বিস্কিটের জন্য শত-শত হাত উঠে আছে এই ছবিটা।

নুরুন নাহারের মা-বাবা অন্ধ। স্বামীর কোন খোঁজ নেই। একটা বিষয় আমি লক্ষ করেছি, এই দেশের নিম্নবিত্ত পুরুষদের নিষ্ঠুরতার অভাব নেই। একটা বিয়ে করে বউ-বাচ্চা ফেলে চলে গেলেই হলো, আরেক জায়গায় গিয়ে আরেকটা বিয়ে করবে; কেউ কিচ্ছু বলে না। আমার মনে হয়, এই দেশের সরকার বাহাদুরের এটা নিয়ে ভাবা প্রয়োজন, কেমন করে এই হারটা কমানো যায়।

নুরুন নাহার বাবা-মার সঙ্গে থেকে ভিক্ষা করত। কিছুদিন চড়া সুদে টাকা নিয়ে বাচ্চাদের কাপড়ও বিক্রি করেছে। আমি যখন বলেছিলাম, আপনার তো অভিজ্ঞতা আছে, কাপড় দিলে বিক্রি করতে পারবেন? নুরুন নাহার এক কথায় রাজি।
প্রথমে ৫০টার মতো বাচ্চাদের কাপড় দেয়া হয়েছিল, বাচ্চাদের কিছু কাপড় এমনও আছে যার দাম পড়েছে সাড়ে তিন টাকা, ভাবা যায়? যা অনায়াসে পনেরো টাকায় বিক্রি করা সম্ভব। চমৎকার করে তিনি কেনা-বেচার কাজ চালিয়ে গেছেন। এখন আরও টাকা হলে সুবিধে হয়।
নুরুন নাহারকে যেটা বলা হয়েছে, যে কাপড়গুলো দেয়া হয়েছিল এটার টাকা তাকে ফেরত দিতে হবে না কিন্তু যে বাড়তি টাকা দেয়া হবে তা মাসে মাসে শোধ দিতে হবে। যার হিসাব রাখবে এদের স্কুলের টিচার।

এখন আমি পড়েছি এক জটিল সমস্যায়। জিরো ক্রেডিট [১] এবং ন্যানো ক্রেডিট [২] নামে আলাদা বিভাগ করেছি। এটা জিরো ক্রেডিটেও খাপ খায় না আবার ন্যানো ক্রেডিটেও মিশ খায় না। এ দেখি বড়ো যন্ত্রণা হলো...।

সহায়ক লিংক
১. জিরো ক্রেডিট: http://tinyurl.com/2fpxq9d
২. ন্যানো ক্রেডিট: http://tinyurl.com/39dkbhh

No comments: