Friday, July 17, 2009

ইমদাদুল হকের ঢোল এবং নিউক্লিয়ার বোমা নিয়ে গোল

ইমদাদুল হক মিলনের প্রথম আলোয় 'সাকুরা ফুলের দেশে' লেখাটা পড়ছিলাম আর ভাবছিলাম একজন মানুষ কেমন করে নিজের সম্বন্ধে এমন নির্লজ্জের মত লিখতে পারেন? তিনি লিখেছেন,
"জাপানি রাষ্ট্রদূত ভদ্রলোক আমার বক্তব্য শুনে এতটা মুগ্ধ হলেন, আমার সঙ্গে হ্যান্ডশেক করার সময় উচ্ছ্বসিত গলায় বললেন, আরে, তোমার তো...প্রাইজ পাওয়া উচিৎ।"
এই ...টা নোবেল প্রাইজ কিনা কে জানে? হলে তো সর্বনাশ। এতো নোবেল আমরা রাখব কোথায়?
ওনার লেখার মান বোঝার জন্য যথেষ্ঠ মনন অবশ্য আমাদের মত সাধারণ পাঠকদের নাই। যুগটা হচ্ছে বড়ো তেলতেলে! 'এসেছিলে তবুও আসো নাই' মিলন সাহেবের এই লেখাটা ছাপাবার যোগ্যতা কী এই প্রশ্ন করা বাতুলতা মাত্র।

আরেক জায়গায় লিখেছেন, "আমাকে দেখে বেশ একটা সাড়া পড়ল দর্শক-শ্রোতাদের মধ্যে। একজনও বাঙালি নেই, সবাই জাপানি। আমার সঙ্গে ছবি তোলার জন্য ভালো রকম ব্যগ্র দেখলাম তাদের।"
হা ঈশ্বর, এটা সত্যি বলেই ধরে নিচ্ছি। কিন্তু নিজের কথা এমন করে না লিখলে কী একটা আসমান নড়বড়ে হয়ে যেত?

যাই হোক, মিলন সাহেব ওই লেখায় হিরোশিমায় বোমা ফেলা নিয়ে হা বিতং করে লিখেছেন, অবশ্য তা তথ্যবহুল। এখানে একটা প্রসঙ্গ এসেছে। "'এনোলা গে'-র কো পাইলট রবার্ট লুই বোমা ফেলার পর আপন মনে বলে উঠলেন, 'হায় ঈশ্বর, আমরা এ কী করলাম'!"

জাফর ইকবাল তাঁর 'আমেরিকা' বইয়ে লিখেন, "ছোট থাকতে শুনেছিলাম, যে পাইলট বোমা ফেলেছিল সে পেছনে তাকিয়ে যখন ধ্বংসলীলা দেখেছে হাহাকার করে বলেছে, 'এ আমি কি করেছি'! শুধু তাই না, তার বেসে ফিরে এসে সে পুরোপুরি পাগল হয়ে গেছে। এই গল্পটি সত্যি নয়, যে টিমটি অত্যন্ত সুচারুরূপে তাদের দায়িত্ব পালন করে এসেছে তাদের ভিতরে পুরো ব্যাপারটা নিয়ে এতটুকু অপরাধবোধ নেই।

বোমা ফেলার নাটের গুরু, প্রধান দু-জনের মন্তব্য এখানে উইকি থেকে তুলে দিচ্ছি:
Colonel Paul W. Tibbets, Jr. – Pilot and Aircraft commander(Enola Gay)
Tibbets expressed no regret regarding the decision to drop the bomb. In a 1975 interview he said: "I'm proud that I was able to start with nothing, plan it, and have it work as perfectly as it did... I sleep clearly every night."In March 2005, he stated, "If you give me the same circumstances, I'd do it again."
(http://en.wikipedia.org/wiki/Paul_Tibbets)

Captain Robert A. Lewis – Co-pilot; Enola Gay's assigned aircraft commander
"...Robert Lewis described Enola Gay's flight and the dropping of the bomb on Hiroshima. When asked if he remembered his reaction on that fateful day, he remarked:
(In the official log) "I wrote down the words, 'My God, what have we done?"
Many years later, when questioned about his role in WWII, Lewis commented, 'I would rather be remembered for being a member of RPHS Championship Football Team than for being the co-pilot of that plane.'"
(http://en.wikipedia.org/wiki/Robert_A._Lewis)

তোমার জন্য এলিজি

আ-।
ক্ক-।
আহা-।
কথাটা-।
আরে কী মুশকিল, আমাকে আমার কথাটা বলতে দেবে, নাকি! প্লিজ, কথাটা শেষ করি।
আমি তোমার বেদনাটা বুঝি না এমন না, বুঝি। তোমার তীব্র অভিমান হওয়ারই কথা। তোমার জায়গায় আমি হলে স্রেফ খুন করে ফেলতাম। খুন করার নিয়ম না থাকলে পিটিয়ে মাথা ফাটিয়ে ফেলতাম। আহা, মোটা একটা ডাল ফেলে দিলে আটকাচ্ছে কে!

তোমাকে যখন নিয়ে আসি, কতটুকু হবে তুমি? উমম, এক হাত লম্বা। কালে কালে তুমি আমার মাথা ছাড়িয়ে গেলে, ছাড়িয়ে গেলে আশেপাশের সবকিছু! তোমার পাশে দাঁড়ালে কী হাস্যকরই না লাগত আমাকে!

তুমি কিন্তু আমার কষ্টটা কখনই স্পর্শ করতে পারবে না। তোমার কী- তোমার তো আর চুল কাটাতে হয় না, বাচ্চার জন্য দুধ কিনতে হয় না। এসবের জন্য ময়লা কাগজগুলোর মূল্য তুমি কি বুঝবে। যেটা বোঝ না সেটা নিয়ে কথা বলতে এসো না। জীবনটা সিনেমা না, বুঝলে? এখানে রিটেকের কোন অপশন নাই।

এমনিতে তুমি কী দিয়েছ এটা বলে কি শেষ করা যাবে! কয়টা বলব? গোটা ছাদ জুড়ে থাকত তোমার কোমল ছায়া। সূর্যের তীব্র আলো ছুতে পারত না । চাদিফাটা গরমে টেরটিও পেতাম না। ভয়ংকর ঝড়ে সবাই যখন ভয়ে কাবু, তুমি বুক চিতিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে, ভয় পালিয়ে যেতে দিশা পেত না। তোমার হাজার-হাজার শুকনো পাতা কুড়িয়ে কত মানুষের রাবনের চুলো জ্বলেছে বছর ধরে।

তুমি আমার সন্তানসম, সন্তান তো না। তোমার জন্য আমি তো আমার সন্তানদের প্রতি অন্যায় করতে পারি না। পারি বাডি? আমার বুঝি ইচ্ছা করে না আমার সন্তানদের ভালো-মন্দ কিনে দিতে?

বাহ বেশ তো, কেবল আমার নিষ্ঠুরতাই দেখলে, নিজে কী? কেন তোমার মনে নাই, তোমার সাইজের আরেকজনকে একই দিনে তোমার পাশে লাগিয়েছিলাম। অথচ ও এখনও কত লিকলিকে! তুমি তাকে বাড়তে দাওনি। বুকে হাত দিয়ে বলো তো, এটা কী অন্যায় না?

জানো, মায়া বড়ো অদ্ভুত জিনিস। কাঠের একটা টেবিলে দিনের পর দির বসে কাজ করলে টেবিলটার প্রতি মায়া পড়ে যায়। আর তুমি সন্তান না হলেও সন্তানসম তো বটে। মন খারাপ করে নারে ব্যাটা।

বনভয়েজ-বিদায়!
















তুমি মরে গেছ, আমি বেঁচে আছি। একদিন আমিও মরে যাব। তুমি তো জানো, এ ভুবনে কিছুই ধ্বংস হয়ে যায় না। কোন না কোন ভাবে পার্টিকেলগুলো থেকেই যায়। আমিও যখন তোমার মত মরে যাবো, কে জানে, হয়তোবা কোথাও না কোথাও আমাদের দেখা হবে, আবারও। অন্য কোথাও, অন্য কোন ভুবনে। জানি না, জানি না আমি...।

video