Thursday, January 8, 2009

আমি আন্তরিকভাবে বিশ্বাস করতে চাই।

শেখ হাসিনার এই ছবিটা কত সালের এটা আমার মনে নাই। তবে অনেক আগের তো বটেই- কত সালে দেখেছিলাম মনে পড়ছে না।। যাযাদি রিপোস্ট করেছিল ২০০৬-এ।
যাই হোক, এমন দৃশ্য নিরাপত্তার খাতিরে এখন দেখা অসম্ভব।
(এরশাদের সেই ফাজলামী দেখে সব বিশ্বাস উবে যেত- এরশাদ সাইকেল চালিয়ে অফিসে যাচ্ছেন আর মাথার উপর চক্কর দিচ্ছে নিরাপত্তা হেলিকপ্টার! )

কিন্তু সাধারণ মানুষের সঙ্গে আন্তরিকতার হাত বাড়িয়ে দিতে সমস্যা কোথায়? আমার আন্তরিক চাওয়া, শেখ হাসিনা সাধারণ মানুষদের জন্য, দেশের জন্য তাঁর সময়টা ব্যয় করুন; যেন এই দেশে আমার ভালো লাগা অল্প কিছু মানুষের সংগে তাঁর নামটাও বলতে পারি।

ভারতের প্রেসিডেন্টের মত ২টা স্যুটকেস নিয়ে গটগট করে বেরিয়ে যাওয়ার সাহস ক-জনের আছে? আল্লা, এই দৃশ্য আবারো দেখতে চাই না, যেন দেখতে না হয়, আমিন...।

চুতিয়া মিডিয়া এবং কেজি দরে প্রাণ

৩০ ডিসেম্বর প্রথম আলোয় শেষ পৃষ্ঠায় ছোট্ট করে খবরটা ছাপা হয়, "৩০০ বাংলাদেশি নিখোঁজ, উদ্ধার ১০২"।
শালার মিডিয়া, এর নাম নাকি মুক্তচিন্তা! কুলিন পত্রিকায় এই খবরটা প্রথম পাতায় ঠাঁই পায়নি। কেন? সহজ হিসাব। যে দেশে মানবতা, মনন বিক্রি হয় কেজি দরে সেই দেশে এমনটা হবে এ আর বিচিত্র কী!

ওই দিনই মুক্তচিন্তার এই পত্রিকার প্রথম পাতায় নেত্রিদের বিশাল বিশাল ছবির জায়গা হয়, বিজয় চিহৃসহ আঙ্গুলের জায়গা হয়, বিজ্ঞাপনের জায়গা হয়, আজ ছাপা হলো ৪,৭৯,৭৫৪ কপি এর জায়গা হয়, হয় না কেবল এমন তুচ্ছ খবরের।

বাকিদের কী হল? এরপর প্রতিদিন অপেক্ষা করি, কিসের কী! পরবর্তী আপডেটগুলো ছাপা হয়েছে বড় হেলাফেলা ভংগিতে। আসলে এইসব শস্তা তথ্য জানাবার সময় আমাদের মিডিয়ার কই!

বদলে যাও, বদলে দাও- মোজায় গন্ধ, মোজা বদলাবে কে?




*ইউটিউবের লিংকটা www.mahbub-suman.com থেকে নেয়া।