Sunday, April 5, 2009

যে-জন পাপ না করেছে...।

ইসলাম ধর্মানুসারিদের দাবি তাঁদের ধর্মই সহিষ্ণুতার চরম পরাকাষ্ঠা দেখিয়ে থাকে। এটা মুখে বলার পাশাপাশি কাজে না দেখালে চলবে কেন? যে কিশোরীকে দোররা মারা হলো এটা কী সহিষ্ণুতার চরম পরাকাষ্ঠা?
পর্দা বিষয়ে কোরানের এই আয়াত কী চোখে পড়ে না কাঠ-মুল্লাদের?
"কেউ ছোটখাটো দোষ করলে, তোমার প্রতিপালকের তো ক্ষমার শেষ নেই।...সুতরাং তোমরা নিজেদের বড় পবিত্র ভেবো না; কে সংযমী তা তিনিই ভাল জানেন..."।
(৫৩ সুরা নাজম: ৩২)

আগের পোস্টে বিস্তারিত দিয়েছি, আবার দিলাম এই কারণে: "নিজেদের বড় পবিত্র ভেবো না" এটার কাছাকাছি রূপকার্থে একটা আয়াত আছে ইঞ্জিল শরীফে।
"...এমন সময় আলেম ও ফরাসীরা একজন স্ত্রীলোককে ঈসার নিকট লইয়া আসিলেন। স্ত্রীলোকটি ব্যাভিচারে ধরা পড়িয়াছিল।
...।
আলেম ও ফরাসীরা সেই স্ত্রীলোককে মাঝখানে দাঁড় করাইয়া ঈসাকে বলিলেন, 'হুজুর, এই স্ত্রীলোকটি ব্যাভিচারে ধরা পড়িয়াছে। শরীয়তে মুসা এইরকম স্ত্রীলোকদের পাথর ছুঁড়িয়া মারিয়া ফেলিতে আমাদের হুকুম দিয়েছেন। কিন্তু আপনি কি বলেন'?


তখন ঈসা নীচু হইয়া আংগুল দিয়া মাটিতে লিখিতে লাগিলেন। কিন্তু তাঁহারা যখন কথাটা বারবার তাঁহাকে জিজ্ঞেস করিতে লাগিলেন, তথন তিনি উঠিয়া তাঁহাদের বলিলেন, 'আপনাদের মধ্যে যিনি কোন পাপ করেন নাই তিনিই প্রথমে উহাকে পাথর মারুন'।

ইহার পরে তিনি নীচু হইয়া আবার মাটিতে লিখিতে লাগিলেন।
এই কথা শুনিয়া সেই ধর্ম-নেতাদের মধ্যে বৃদ্ধ লোক হইতে আরম্ভ করিয়া একে এক সকলেই চলিয়া গেলেন। ঈসা কেবল একা রহিলেন আর সেই স্ত্রীলোকটা মাঝখানে দাঁড়াইয়া রহিল।

ঈসা উঠিয়া সেই স্ত্রীলোকটাকে বলিলেন, 'বোন, তাহারা কোথায়? কেহ কি তোমাকে শাস্তির উপযুক্ত মনে করেন নাই?
স্ত্রীলোকটি উত্তর দিল, না হুজুর, কেহই করেন নাই'।
তখন ঈসা বললেন, 'আমিও করি না। আচ্ছা যাও। পাপের জীবন আর কাটাইও না'।"
(ইঞ্জিল শরীফ, ৪র্থ খন্ড: ইউহোন্না ৮:২-১১)

No comments: